জাতীয়

নিয়মিত অভিবাসন নিশ্চিত করতে একমত বাংলাদেশ-মালদ্বীপ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: অনিয়মিত প্রবাসী কর্মীদের নিয়মিত করার পর অদক্ষ কর্মী নিতে শুরু করবে মালদ্বীপ। এ ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ থেকে সরকার অনুমোদিত এজেন্টের মাধ্যমে কর্মী নিতে দুই দেশ একমত হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে নিয়মিত অভিবাসন নিশ্চিত করতে সমঝোতা স্মারকও সই হবে।

বিজ্ঞাপন

মালদ্বীপের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ শহিদের চার দিনের ঢাকা সফর উপলক্ষে দুই দেশের এক যৌথ বিবৃতিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) এই যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা সফরে এসেছিলেন মালদ্বীপের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ শহিদ। আজ বৃহস্পতিবার ছিল তার সফরের শেষ দিন। তার এই সফর শেষে দুই দেশের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুই দেশের সম্পর্ক নিবিড় রাখতে দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে দুই দেশ যৌথ কমিশন গঠন করতে একমত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মালদ্বীপের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়নে বাংলাদেশের প্রবাসী কর্মীদের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। অনিয়মিত অভিবাসীদের নিয়মিত করতে মালদ্বীপের অর্থনৈতিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় ২০১৯ সাল থেকে আইনি উদ্যোগ নিয়েছে।

বাংলাদেশের অনিয়মিত প্রবাসী কর্মীদের নিয়মিত করতে মালদ্বীপের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। এ বিষয়ে মালদ্বীপের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, অনিয়মিত অভিাসীদের নিয়মিত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর মূল কারণ অভিবাসীদের আইনি বৈধতা নিশ্চিত করা, অনিয়মিতদের মধ্যে যারা মালদ্বীপে থাকতে চান তাদের জন্য কাজের ব্যবস্থা করা এবং কেউ স্বেচ্ছায় নিজ দেশে ফিরতে চাইলে তাকে সহযোগিতা দেওয়া। অভিবাসীরা অনিয়মতি থাকলে তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হবেন।

বিজ্ঞাপন

যৌথ বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মালদ্বীপে এখন অদক্ষ কর্মী নেওয়া স্থগিত আছে। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, অনিয়মিত প্রবাসী কর্মীদের নিয়মিত করার প্রক্রিয়া শেষ হলে ফের অদক্ষ কর্মী নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে। তবে বাংলাদেশ থেকে দক্ষ কর্মীদের বরাবরই স্বাগত জানায় মালদ্বীপ।

অভিবাসন বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে সমাঝোতা স্বারক সই হলে এ বিষয়ে দুই দেশই লাভবান হতে পারে বলে প্রস্তাব দেন মালদ্বীপের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তার এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ে এ বিষয়ে দুই দেশের যথাযথ কর্তৃপক্ষের মধ্যে নিয়মিত আলোচনা হওয়া উচিত বলে মত দিয়েছে বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

অভিবাসনে আগ্রহীরা যেন কোনোভাবে প্রতারণার শিকার না হয়, সেটি নিশ্চিত করতে সরকার অনুমোদিত এজেন্টের মাধ্যমে কর্মী পাঠানোর বিষয়ে পরামর্শ দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তার এই পরামর্শকেও মালদ্বীপ স্বাগত জানিয়েছে।

সারাবাংলা/জেআইএল/টিআর


Source link

আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button