ফিচার

মাছেরা হয়তো জানতে পেরেছিল হিমবাহ ধসের আগাম খবর!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যের চামলি জেলার জোশিমঠে হিমবাহ ধসের ঘটনা ঘটেছে। এতে ২৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। আর নিখোঁজ রয়েছেন ১৭১ জনেরও বেশি মানুষ। রোববার এ বিপর্যয়ের দিন রাজ্যের অলকানন্দা নদীর তীরে লাসু গ্রামে অবাক করার মতো আরেকটি ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

এদিন স্থানীয় সময় ৯টার দিকে পানির গভীরে থাকা মাছগুলো ওপরে ভেসে ওঠে। একসঙ্গে এত মাছ ভাসতে থাকায় নদীর স্রোত রুপালি দেখায়। মাছ সাধারণত নদীর মাঝ দিয়ে সাঁতার কেটে থাকে। কিন্তু এদিন নদীর পাড় দিয়ে সাঁতার কাটছিল তারা। এ দৃশ্য দেখার জন্য গ্রামবাসীর ভিড় করেন। আর এরপর পরই হিমবাহ ধসের ঘটনা সামনে আসে।

এরপর থেকেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে- তাহলে মাছ কি বন্যার খবর আগাম পেয়ে থাকে? সাধারণ মানুষের এ প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন ওয়াইল্ডলাইফ ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া’র বিজ্ঞানী কে শিবকুমার।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে কে শিবকুমার জানান, মাছ অত্যন্ত অনুভূতিপ্রবণ প্রাণী। বহু দূরে নদীতে কোনো ধরনের কম্পন হলে তারা তা বুঝতে পারে। তাই এক্ষেত্রে নদীর মাছগুলো হয়তো বুঝতে পেরেছিল বহু দূরে হিমবাহের অংশ ভেঙে পড়েছে। এই বিপর্যয়ের আগে মাছগুলোর এমন অদ্ভূত আচরণের কারণ জানতে আরও বিশদ গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

এদিকে গত সোমবার ভারতের ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন’র (ডিআরডিও) একজন শীর্ষ বিজ্ঞানী জানান, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, হিমবাহের ঝুলন্ত একটি অংশ মূল হিমবাহ থেকে ভেঙে নীচে পড়ে যায়। এ কারণে গত রোববার নদীতে ভয়াবহ বন্যা হয়।

বিজ্ঞাপন

সূত্র: দ্য ওয়াল

সারাবাংলা/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button