রাজনীতি

‘গুজব উপেক্ষিত, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতায় করোনা নিয়ন্ত্রণে‘

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিভিন্ন মহলের ছড়ানো গুজব উপেক্ষা করেই মানুষজন ভ্যাকসিন নিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতার কারণে করোনা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। এছাড়া মৃত্যুর সংখ্যাও কমে এসেছে।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজারবাগের কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি। এ সময় সবাইকে করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আসার পর মানুষ নানা ধরনের গুজব ছড়িয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শিতার কারণে করোনায় আজ মৃত্যুর সংখ্যাও কমে এসেছে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ হাসপাতাল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।’

বিজ্ঞাপন

পুলিশ হাসপাতালের কথা উল্লেখ করে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘শুধু পুলিশ সদস্যরা নয়, বাইর থেকে যারা আসছেন তাদেরও পুলিশ হাসপাতালে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। পুলিশ হাসপাতালে ১৮টি বুথ রয়েছে। প্রতিদিন ভিড় বাড়ায় ১৮টি বুথ করা হয়েছে। আমাদের পুলিশ প্রশাসনের সবাই ভ্যাকসিন নিচ্ছে।’

অচিরেই পুলিশ হাসপাতাল প্রথম শ্রেণি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে এমনটা জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জানেন কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল দেশের প্রথম সারির হাসপাতাল। বলার অপেক্ষা রাখে না আমরা আরও আধুনিক, যুগোপযোগী এবং প্রথম শ্রেণির হাসপাতালে উন্নীত করার জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

বিজ্ঞাপন

পুলিশ হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমে এসেছে জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘এখন পুলিশ হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫০ এর নিচে চলে এসেছে। কিছুদিন আগেও পুরো হাসপাতালই ছিল কোভিড আক্রান্ত রোগীতে পূর্ণ। আমাদের সেই দিনের কথা মনে হয়, যেদিন আমি প্রথম শব্দটি ব্যবহার করেছিলাম কিংকর্তব্যবিমূঢ়। সেদিন পুলিশবাহিনীর মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছিল। সব জায়গায় একটা আতঙ্ক ছিল, কে কোথায় যাবে? আপনারা জানেন, পুলিশের ব্যারাকে একটু কষ্ট করেই থাকতে হচ্ছে। তাই এখানে সংক্রমণের হারটা বেড়ে গিয়েছিল। আমি আগেই বলেছি পুলিশের নেতৃত্বগুণ ছিল বলেই সেখান থেকে উত্তরণ ঘটাতে পেরেছি।’

তিনি বলেন, ‘একটা কথা আমি সবসময়ই বলি, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় পুলিশ কিন্তু শুধু এই হাসপাতালেই নয়, ফ্রন্টলাইনার হিসেবেও কাজ করেছে।’

বিজ্ঞাপন

এদিন একই হাসপাতালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীনও করোনার ভ্যাকসিন নেন।

সারাবাংলা/এসএইচ/পিটিএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button