স্বাস্থ্য

দেশে ভ্যাকসিনের জন্য নিবন্ধন করেছে প্রায় ১৭ লাখ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহীদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ভ্যাকসিনের জন্য সুরক্ষা ওয়েবসাইটে রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত নিবন্ধিত হয়েছেন ১৬ লাখ ৯৮ হাজার ৩৯৪ জন।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদফতরের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সেন্টার (এমআইএস) থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এদিকে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ মোকাবিলায় দেশে জাতীয়ভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগের সপ্তম দিনে এক লাখ ৬৯ হাজার ৩৫৩ জন ভ্যাকসিন নিয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানীতে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ২২ হাজার ৯৮২ জন।

বিজ্ঞাপন

এখন পর্যন্ত দেশে সর্বমোট ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন ৯ লাখ ৬ হাজার ৩৩ জন। ভ্যাকসিন প্রয়োগ পরবর্তী সময়ে ৪২৬ জনের মাঝে হালকা জ্বর, গায়ে ব্যথা এমন লক্ষণ দেখা গেলেও এখনও পর্যন্ত সবাই সুস্থ আছেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম (এমআইএস) বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান সারাবাংলাকে বলেন, ‘যেকোনো ভ্যাকসিন নেওয়ার পর মানুষের ভ্যাকসিন নেওয়ার স্থানে লাল হতে পারে, সামান্য জ্বর আসতে পারে এবং কিছু ক্ষেত্রে ভ্যাকসিন নেওয়ার স্থানসহ শরীরে ব্যথা হতে পারে। ৩৯৪ জনের ক্ষেত্রে এমনই হয়েছে। এখন পর্যন্ত কারোর মাঝেই এর চেয়ে গুরুতর কিছু দেখা যায়নি। তাই আমরা বলতে পারি, সবাই সুস্থ আছে।’

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, জনসাধারণ পর্যায়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগের প্রথম দিন ৩১ হাজার ১৬০ জন ও দ্বিতীয় দিন ৪৬ হাজার ৫০৯ জন ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন। তৃতীয় দিনে ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন এক লাখ এক হাজার ৮২ জন। চতুর্থ দিনে দেশে এক লাখ ৫৮ হাজার ৪৫১ জন ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন। পঞ্চম ও ষষ্ঠ দিনে ভ্যাকসিন গ্রহণ করে যথাক্রমে দুই লাখ চার হাজার ৫৪০ জন ও এক লাখ ৯৪ হাজার ৩৭১ জন।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রথম দিন ২১ জনের মধ্যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলেও দ্বিতীয় দিন দেখা দেয় ৭১ জনের মধ্যে। তৃতীয় দিন ৯৪ জন এবং চতুর্থ দিন দেখা দিয়েছে ৭০ জনের শরীরে। পঞ্চম দিনে দেশে ৭৬ জনের মাঝে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। ষষ্ঠ দিনে ৩১ জনের মাঝে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তবে সবাই সুস্থ আছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি/পিটিএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button