খেলা

বিপদে লিভারপুল

স্পোর্টস ডেস্ক

২০২১ সালটা লিভারপুলের জন্য দুঃস্বপ্ন ডেকে এনেছে, নতুন বছরে এখন পর্যন্ত খেলা ১২টি ম্যাচের মধ্যে ৭টি ম্যাচেই হেরেছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। যার সর্বশেষটা এল গতরাতে নগরপ্রতিদ্বন্দ্বি এভারটনের কাছ থেকে। মার্সিসাইড ডার্বিতে ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে ২-০ গোলের পরাজয়ে শিরোপা ধরে রাখার দৌড় থেকে আরও খানিকটা পিছিয়ে পড়েছে অল রেডসরা।

বিজ্ঞাপন

মার্সিসাইড ডার্বিতে লিভারপুলের ঘরের মাঠ থেকে ২২ বছর পর জয় নিয়ে ফিরেছে এভারটন। ২২ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটেছে কিংবদন্তি কোচ কার্লো আনচেলোত্তির হাত ধরে। শেষবার ১৯৯৯ সালে কেভিন ক্যাম্পবেলের গোলে লিভারপুলের অ্যানফিল্ড থেকে জয় নিয়ে ফিরেছিল নীলরা। তার ঠিক ২২ বছর পর এভারটনের ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার রিচার্লিসন ও আইসল্যান্ডের মিডফিল্ডার গিলফি সিগুর্ডসনরা জয় ছিনিয়ে নিয়ে লিভারপুল শহরকে নীল রঙে সাঁজাল।

আর তাতেই প্রিমিয়ার লিগে টানা চার ম্যাচে হারের স্বাদ পেল অল রেডরা। যার মধ্যে ঘরের মাঠেই হেরেছে তিনটি আরেকটি হার এসেছে লেস্টার সিটির মাঠে। অথচ কিছুদিন আগে এই অ্যানফিল্ডই ছিল দুর্গের সমান। দেশ–বিদেশের ক্লাবগুলো যে দুর্গে এসে জয়ের আশা তেমন করত না। প্রায় ১ হাজার ৩৬৯ দিন ধরে নিজেদের দুর্গ অটুট রাখার পর যেভাবে টানা চার ম্যাচে এভাবে হেরে বসেছে তারা, তাতে ফিরে এসেছে প্রায় শতবর্ষী পুরোনো এক স্মৃতি। এর আগে সেই ১৯২৩ সালের ডিসেম্বরে ঘরের মাঠে টানা চার ম্যাচ হেরেছিল। আর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ঠিক পরের মৌসুমে নিজেদের মাঠে টানা চার ম্যাচ হারার রেকর্ডটা ছিল কেবল এভারটনেরই। ১৯২৮-২৯ মৌসুমে নিজেদের করা ওই কীর্তির ভাগীদার হিসেবে এবার তারা নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদেরও পাবে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে লিভারপুল অধিনায়ক জর্ডান হ্যান্ডারসন চোট পেয়ে ম্যাচের প্রথমার্ধেই মাঠ ছাড়েন। ২০২০/২১ মৌসুমে একের পর এক চোটাক্রান্ত হয়ে ধুকছে লিভারপুল। দলের প্রধান দুই সেন্টার ব্যাক পুরো মৌসুমের জন্য ছিটকে যাওয়ার কারনে হ্যান্ডারসনকে খেলানো হচ্ছিল সেন্টারব্যাকে। এবার তিনিও ছিটকে গেলেন ইনজুরিতে পড়ে। তাই তো বড্ড বিপদের মুখে পড়েছে অল রেডরা।

ম্যাচের মাত্র তিন মিনিটের মাথায় হামেস রদ্রিগেজের অ্যাসিস্ট থেকে গোল করে এভারটনকে এগিয়ে নেন রিচার্লিসন। এরপর চেষ্টা চালিয়েও গোল শোধ করতে পারেনি লিভারপুল। শেষ দিকে বিতর্কিত এক পেনাল্টিতে নিজেদের ব্যবধান বাড়ায় এভারটন। দুর্দান্ত এক কাউন্টারে লিভারপুলের গোলমুখে শট মারেন ইংলিশ স্ট্রাইকার ডমিনিক কালভার্ট-লুইন। লিভারপুলের গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকার সে শট আটকালেও তাঁর ঠিক সামনে থাকা রাইটব্যাক ট্রেন্ট অ্যালেক্সান্ডার-আর্নল্ড মাথায় পা লেগে হোঁচট খেয়ে পড়ে যান এই স্ট্রাইকার।

বিজ্ঞাপন

ভিএআরের সাহায্য নিয়ে এই কাণ্ডের জন্য লিভারপুলের বিপক্ষে পেনাল্টি দেন রেফারি। সেখান থেকেই গোল করে দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন সিগুর্ডসন। পরে জর্জিনিও ওয়াইনালডম, রবার্তো ফিরমিনো, মোহাম্মদ সালাহরা চেষ্টা করেও গোল শোধ করতে পারেননি।

এই হারে প্রিমিয়ার লিগে ২৫ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে লিভারপুলের অবস্থান ছয় নম্বরে। ২৫ ম্যাচে অল রেডদের জয়ের সংখ্যা ১১টি আর ড্র ও হার সমান সাতটি ম্যাচে। এক ম্যাচ কম খেলে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে লিভারপুলের পেছনে সাতে অবস্থান এভারটনের। ২৪ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে আছে ম্যানচেস্টার সিটি, ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এরপরে তিনে আছে লেস্টার সিটি ও চারে চেলসি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button