খেলা

বউয়ের দিকে আঙুল তুলে কথা বললে আইনি ব্যবস্থা নেবো: নাসির

স্পোর্টস ডেস্ক

‘এতোদিন ও শুধু তামিমা ছিল, এখন সে তামিমা হোসেন। আমি চাইবো না আমার বউয়ের দিকে কেউ কথা বলুক।’ স্ত্রী তামিমা হোসেন তাম্মিকে দেখিয়ে কথাগুলো বলছিলেন ক্রিকেটার নাসির হোসেন। বউয়ের দিকে আঙুল তুলে কথা বললে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় স্বস্ত্রীক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেছেন নাসির। রাজধানী বনানিতে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে এমন কথা বলেন নাসির।

নাসির বলেন, ‘এতোদিন ও শুধু তামিমা ছিল, এখন সে তামিমা হোসেন। আমি চাইবো না আমার বউয়ের দিকে কেউ কথা বলুক এবং আমার বউকে নানান ধরনের কথাবার্তা বলুক। যারা যেখান থেকেই এসব কথাবার্তা বলতেছে না কেন আমি আইনগতভাবে তাদের ব্যবস্থা নেব।’

বিজ্ঞাপন

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দুদিন ধরে নাসিরে বিয়ে নিয়ে বিভিন্ন কথা উঠছে। তামিমা হোসেন তাম্মির প্রথম স্বামী দাবি করেছেন তাকে ডিভোর্স না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা। তাদের ঘরে ছয় বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। এর প্রেক্ষিতে তামিমা তাম্মিকে নিয়ে বিভিন্ন কথা ঘুরছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

বউয়ের দিকে আঙুল তুলে কথা বললে আইনি ব্যবস্থা নেবো: নাসির

বিজ্ঞাপন

বিষয়টি মানসিকভাবে কতোটা ভোগাচ্ছে এমন প্রশ্নে নাসিরের উত্তর, ‘এটা আমাদের দুজনকে না যতোটা প্রভাবিত করছে তার চেয়ে বেশি প্রভাবিত করছে আমাদের পরিবারকে। আমাদের পরিবার আছে, বন্ধু-বান্ধব আছে, আত্মীয় আছে। সবাইকেই প্রভাবিত করছে। আমি এসব না করার আহ্বান জানাচ্ছি। আমি হয়তো জাতীয় দলের খেলোয়াড়, আমাকে অনেকে ভালোও বাসে আবার কেউ অপচ্ছন্দও করে। কিন্তু তামিমা তো এই কালচারের না। ওর জন্য এই পরিস্থিতিটা কঠিন। ওকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যেসব কথা হচ্ছে, যেসব ভিডিও… সেভাবে হেডলাইন দেওয়া হচ্ছে… আমার মনে হয় না সে এটা ভালোভাবে নিতে পারছে।’

‘আমি তামিমার কাছ থেকে এক সেকেন্ডের জন্যও আলাদা হইনি। কারণ আমার এখন ভয় লাগতেছে যে ও এখন না একটা ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয়! দেখেন এটা আজকে তামিমার সঙ্গে হচ্ছে পরে অন্য কারও সঙ্গেও হতে পারে। আপনাদেরও মা-বোন আছে। ও (তামিমা) ছোটবেলায় বিয়ে করছে। বিয়ে করতেই পারে, প্রেম করতেই পারে, স্বাভাবিক। তো ওর কি সুখে থাকার কোনো অধিকার নেই? আমি সব কিছু জেনেই ওকে (তামিমা) গ্রহণ করেছি।’

বিজ্ঞাপন

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা হোসেন তাম্মি। তার পরপরই তামিমার প্রথম স্বামী রাকিব দাবি করেছিলেন, তাকে ডিভোর্স না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা। এই অভিযোগে নাসির-তামিমাকে আসামি করে মামলাও করেছেন রাকিব হাসান। কিন্তু আজ তামিমা সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন, ২০১৭ সালেই রাকিবকে ডিভোর্স দিয়েছেন তিনি। অবশ্য পরক্ষণেই তামিমার এই দাবি অস্বীকার করেছেন রাকিব। ডিভোর্সের কাগজ তিনি পাননি বলে সারাবাংলাকে জানিয়েছেন তামিমার প্রথম স্বামী রাকিব হাসান।

আরও পড়ুন-

বিজ্ঞাপন

সব ধরনের আইন মেনেই বিয়ে করেছি: নাসির-তামিমা

নাসির-তামিমার ডিভোর্সের দাবি মিথ্যা: রাকিব

সারাবাংলা/এসএইচএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button