আইন-বিচার

স্বাস্থ্য ও কারা অধিদফতরের ডিজিকে আদালত অবমাননার নোটিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আদালতের আদেশ অমান্য করাসহ অসত্য তথ্য সরবরাহ করায় স্বাস্থ্য অধিদফতর ও কারা অধিদফতরের ডিজিকে (মহাপরিচালক) আদালত অবমাননার নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (৭ মার্চ) রেজিস্ট্রি ডাকযোগে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. জে আর খান (রবিন) এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে বলা হয়েছে, দেশের ৬৮টি কারাগারে ৪০ হাজার ৬৬৪ কারাবন্দির ধারণ ক্ষমতা থাকলেও অনেক ক্ষেত্রে এর চেয়ে দুই-তিন গুণ বেশি কারাবন্দি কারগারে অবস্থান করেন। অন্যদিকে ১৪১টি কারা ডাক্তারের পদের বিপরীতে ডাক্তার ছিল মাত্র নয় জন।

বিজ্ঞাপন

এতে করে কারাবন্দিদের মৌলিক অধিকার বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আইনজীবী মো. জে আর খান (রবিন) জনস্বার্থে একটি রিট দায়েরে করেন। ওই রিটের প্রেক্ষিত্রে ২০১৯ সালের ২৩ জুন বিচারপতি এ এফ এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুল জারি করেন।

রুলে কারাবন্দিদের বাসস্থান ও চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতের ব্যর্থতাকে কেনো বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চান এবং কারা কর্তৃপক্ষকে সার্বিক বিষয়ে আাদালতকে অবহিত করার নির্দেশ প্রদান করেন। এরপর কারা কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন তারিখে হলফনামার মাধ্যমে দেশের সকল কারাগারে ২৪ জন ডাক্তার থাকার বিষয়ে নিশ্চিত করেন, সঙ্গে সঙ্গে অবশিষ্ট খালি ১১৭টি পদে ডাক্তার নিয়োগের ব্যাপারেও প্রয়োজনীয় আদেশ প্রার্থনা করেন।

বিজ্ঞাপন

এর ধারাবাহিকতায় ২০২০ সালের ২০ জানুয়ারি হাইকোর্ট অনতিবিলম্বে শুন্য পদে ১১৭ জন ডাক্তার নিয়োগের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিজিকে নির্দেশ প্রদান করেন।

এরপর চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি কারা কর্তৃপক্ষ হলফের মাধ্যমে আদালতকে জানায় যে, ‘১৪১ পদের বিপরীতে ১২২ জন ডাক্তার দেশের বিভিন্ন কারাগারে নিয়োজিত আছে। তার মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২৭ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ছয় জন, রাজশাহী বিভাগে ১৮ জন, রংপুর বিভাগে ১১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৭ জন, সিলেট বিভাগে ১৭ জন, খুলনা বিভাগে ১৬ জন, বরিশাল বিভাগে ১০ জন নিয়োজিত আছেন। ১২২ জনের মধ্যে সাত জন ডিপোর্টেশনে এবং ১০৫ জন পর্যায়ক্রমে সংযুক্ত আছেন।’

বিজ্ঞাপন

আইনজীবী মো. জে আর খান (রবিন) বলেন, ‘একই বিষয়ে গত ৪ মার্চ একটি দৈনিক পত্রিকায় একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।’

ওই প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এখনো কারাগারে ১৩৪টি ডাক্তারের পদ শূন্য রয়েছে। সেহেতু স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিজি আদালতের আদেশ অনুসারে কারাগারে ডাক্তার নিয়োগ না দেওয়ায় আদালত আদেশ অমান্য করেছেন। একইসঙ্গে কারা কর্তৃপক্ষ ডাক্তার নিয়োগের বিষয়ে সঠিক তথ্য সরবরাহ না করায় তাদের কাজও আদালত অবমানের সামিল। তাই তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার নোটিশ প্রেরণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তাই নোটিশ পাওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে আদালতের নির্দেশ মোতাবেক কারাগারে অন্তবর্তীকালীন ১১৭টি শুন্য পদে ডাক্তার নিয়োগের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানে হয়েছে। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন করা হবে বলেও নোটিশে জানানো হয়েছে।

সারাবাংলা/কেআইএফ/এমআই


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button