জাতীয়

‘টিকা নিয়ে কটূক্তি করেছে, সেই টিকাও বিএনপি নেতাদের নিতে হলো’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জনগণের পাশে থেকে জনগণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘এই করোনাভাইরাসের সময় কত কথাই তো বিএনপি নেতারা বলেছে? এমনকি টিকা নিয়েও তো কত কটূক্তি করেছে। কিন্তু সেই টিকা তো তাদের নিতে হল। বিনা পয়সার টিকা তো বিএনপির নেতারা সবাই নিয়েছে। কিন্তু, তার আগে তাদের কথাগুলি কী ছিল?’

বিজ্ঞাপন

সোমবার (৮ মার্চ) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ প্রান্তে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নেতারাসহ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আজকে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। জাতির পিতার যে স্বপ্ন ছিল, মাত্র ১২ বছরের মধ্যে আমরা বাংলাদেশকে সেই উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছি। এটা বোধহয় তাদের একটুও পছন্দ না। কারণ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সফল হোক, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সফল হোক, বাংলাদেশের মানুষ পেটভরে ভাত খাবে, সুন্দর জীবন পাবে, উন্নত জীবন পাবে, বাংলাদেশের মানুষ উন্নত হবে, এটা তো তাদের পছন্দ না। তাদের কাছে ক্ষমতা ছিল ভোগের বস্তু। হাজার হাজার কোটি টাকা বানিয়েছে এবং বিলাস ব্যসনে জীবন ভাসিয়েছে। কাজেই তারা এদেশের মানুষের কষ্ট দুখ বুঝবে কিভাবে? ইতিহাসকে তারা বিকৃতি করেছ তাদের স্বার্থে। আমি আমার নেতাকর্মীদের বলব, ওরা কি বলল, এটা নিয়ে আমাদেও কথা বলার দরকার নাই বা ওটা নিয়ে আমাদের চিন্তা করারও কিছু নেই। আমরা জনগণের পাশে আছি। আমরা জনগণের জন্য কাজ করি। এই করোনাভাইরাসের সময় কত কথাই তো তারা বলেছে? এমনকি টিকা নিয়েও তো কত কটূক্তি করেছে। কিন্তু সেই টিকা তো তাদের নিতে হল।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমি সরকারে আসি। পয়সা দিয়ে টিকা কিনে বিনা পয়সায় দিচ্ছি। আর সেই বিনা পয়সার টিকা তো বিএনপি নেতারা সবাই নিয়েছে। কিন্তু, তার আগে তাদের কথাগুলি কি ছিল? তো ওরা ওভাবে বলবে, কাজেই এটা নিয়ে আমার মনে হয়, আলোচনা করে আমাদের সময় নষ্ট না করে আমি এইটুকুই বলব- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শুধু একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন না। তিনি একজন দক্ষ রণকৌশলী ছিলেন। যিনি এদেশের স্বাধীনতার জন্য দীর্ঘ সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করে বিজয় অর্জন করে বাঙালিকে বিজয়ী জাতি হিসাবে প্রতিষ্ঠা করে করে দিয়ে গেছেন।’

বিজ্ঞাপন

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে। জনগণের পাশে আমরা আছি। আর জনগণের কল্যাণ করাই আমাদের লক্ষ্য। মুজিববর্ষে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বাংলাদেশের একটি মানুষও ভূমিহীন থাকবে না। গৃহহীন থাকবে না। প্রতিটি মানুষের একটা ঠিকানা হবে।’ সেই পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন শেখ হাসিনা।

সারাবাংলা/এনআর/এমআই


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button