সারাদেশ

বগুড়ায় ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ পরিদর্শন করল গিনেজ প্রতিনিধিদল

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

বগুড়া: শস্যের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর অবয়ব ফুটিয়ে তোলার কার্যক্রম ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ পরিদর্শন করেছে গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ডের প্রতিনিধিদল। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বগুড়ার শেরপুর উপজেলার বালেন্দা গ্রামে এই কার্যক্রম পরিদর্শন করেন তারা।

বিজ্ঞাপন

গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ডের প্রতিনিধি হিসেবে শস্যচিত্র পরিদর্শন করেন শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ ও অধ্যাপক ড. এমদাদুল হক চৌধুরি।

পরিদর্শন শেষে তারা জানান, আগামী তিন দিনের মধ্যে তারা পরিদর্শন রিপোর্ট জমা দেবেন গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষের কাছে। সেখান থেকে আগামী সপ্তাহেই ইতিবাচক সাড়া পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

বিজ্ঞাপন

তারা আরও জানান, গিনেজ বুক রেকর্ডের জন্য যে নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছিল, বালেন্দা গ্রামে তা অনুসরণ করেই শস্যচিত্র ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। এখানকার আয়তন, শস্যের ঘনত্ব সবকিছুই সন্তোষজনক। ফলে আশা করা যাচ্ছে দ্রুতই গিনেজ বুক কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবেন।

বগুড়ায় ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’ পরিদর্শন করল গিনেজ প্রতিনিধিদল

বিজ্ঞাপন

কৃষি জমিকে ক্যানভাস হিসেবে ব্যবহার করে দুই প্রজাতির ধানের সুপরিকল্পিত ও শৈল্পিক চাষের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর ছবি আঁকার উদ্যোগ নেওয়া হয় এই গ্রামের মাঠে। এর ফলে ১০০ বিঘা জমিতে প্রস্ফুটিত হয়ে ওঠে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি। ইতোমধ্যেই সবুজ আর বেগুনি ধানের চারায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠেছে এবং দর্শনার্থীদের তা বিশেষভাবে আকৃষ্ট করেছে। ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদ’ এই প্রতিকৃতি তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করে। এতে সহযোগিতা দিচ্ছে ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার।

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানান, চারা থেকে শীষ আসবে, ধান হবে, ধান পাকবে আর প্রতিটি ধাপেই তৈরি হবে জাতির পিতার একেক ধরনের পোট্রেট। ১০০ বিঘা জমির ওপর নির্মিত ভিন্নরকম এই চিত্রকর্মের উদ্দেশ্য গিনেজ বুক রেকর্ড করা। গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের তথ্য অনুযায়ী সবচেয়ে বড় শস্যচিত্র ২০১৯ সালে চীনে তৈরি করা হয়। যার আয়তন ছিল ৮ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৬ বর্গফুট। বাংলাদেশের শস্যচিত্রের আয়তন হবে প্রায় ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট বা ১ লাখ ২০ হাজার বর্গমিটার। শস্যাচিত্রটির দৈর্ঘ্য ৪০০ মিটার ও প্রস্থ ৩০০ মিটার। ১৭ মার্চে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে নতুন এই বিশ্বরেকর্ড অর্জন উদযাপন করতে চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানান তারা।

বিজ্ঞাপন

গিনেজ বুক প্রতিনিধিদলের পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের আহ্বায়ক ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের সদস্য সচিব কে এসএম মোস্তাফিজুর রহমান, স্থানীয় সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ আওয়ামী কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান দুলু।

সারাবাংলা /এসএসএ


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button