রাজনীতি

বাংলাদেশকে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বলা যায় না: জি এম কাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, স্বৈরতন্ত্র আর সুশাসনের অভাবের কারণে বাংলাদেশকে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বলা যায় না। সংসদীয় গণতন্ত্রের নামে যা চলছে তাতে গণতন্ত্র চর্চা সম্ভব নয়। নোয়াখালীর বসুরহাটের মত সারাদেশেই অরাজকতা সৃষ্টি হয়েছে। ক্ষমতার ভারসাম্যহীনতাই দেশে দুর্নীতি ও দুঃশাসন জন্ম দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) জাতীয় পার্টিতে যোগ দেওয়া নেতাকর্মীদের স্বাগত জানিয়ে দলের চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ এসব কথা বলেন। সড়ক ও জনপথ বিভাগের সাবেক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার এনায়েতুর রহমানের নেতৃত্ব বিভিন্ন দলের অর্ধশত নেতাকর্মী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের হাতে ফুল দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, ‘১৯৯১ সালে এরশাদের ক্ষমতা হস্তান্তরের পর থেকে দেশে সংসদীয় গণতন্ত্রের নামে স্বৈরতন্ত্র চলছে। বিএনপি ক্ষমতায় বসে দুর্নীতি ও দলীয় করণের মাধ্যমে দেশে বৈষম্য সৃষ্টি করেছে, যা এখনো চলছে। দেশে নির্ভেজাল গণতন্ত্র জরুরি হয়ে পড়েছে।’

বিজ্ঞাপন

পশ্চিম পাকিস্তানিদের বৈষম্যের প্রতিবাদে মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিলো উল্লেখ করে জি এম কাদের বলেন, ‘এখন ক্ষমতাসীন দল না করলে চাকরি মেলে না, ব্যবসা-বাণিজ্য করা যায় না। ক্ষমতাসীনরা দেশের মানুষের শান্তি হরণ করেছে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মূল্যায়ন করলে মনে হচ্ছে, ১৯৯১ সালের পর থেকে দেশের মানুষ স্বাধীনতার প্রকৃত স্বাদ পাচ্ছে না। তাই স্বাধীনতার সুফল দেশের মানুষের মাঝে পৌঁছে দিতে নতুন করে সংগ্রাম শুরু করেছে জাতীয় পার্টি।’

জাতীয় পার্টি মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ও বিএনপির তুলনায় জাতীয় পার্টির শাসনামলে দেশের মানুষ বেশি সুশাসন ভোগ করেছে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি মানুষের মানবাধিকার খর্ব করেছে। বর্তমান সরকার মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে, মানুষের বাক ও ব্যক্তি স্বাধীনতা হরণ করেছে।’ এসময় স্বৈরতন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও ন্যায় প্রতিষ্ঠান আন্দোলনে শরিক হতে সবাইকে জাতীয় পার্টিতে যোগ দিতে আহ্বান জানান জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।

বিজ্ঞাপন

এসময় বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লেফটেনেন্ট জেনারেল (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মীর আব্দুস সবুর আসুদ, লে. জে. (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, নাজমা আকতারসহ অন্যরা।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/এমও


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button