রাজনীতি

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের মান নিয়ে ফখরুলের প্রশ্ন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নির্মাণাধীন এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেছেন, ‘আজ বিশাল একটি ঘটনা ঘটেছে, আপনারা কেউ দেখেছেন কি না জানি না। এয়ারপোর্টের সামনে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের গার্ডার ভেঙে পড়েছে। চিন্তা করেন, জনগণের টাকা নিয়ে যে এই সমস্ত তৈরি করা হচ্ছে, সেটা হঠাৎ করে ভেঙে পড়ছে। তাহলে তার মান কি হচ্ছে?’

রোববার (১৪ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল রচিত ‘কুপি বাতির গণতন্ত্র’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

উন্নয়নের নামে সরকার দেশকে ফোকলা করে দিচ্ছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘এখানে আসার সময় ফরেন অ্যাফেয়ারস মিনিস্ট্রির দেয়ালে বড় করে লেখা দেখলাম, উন্নয়নের গণতন্ত্র, শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র। এটার ব্যাখ্যা অনেকভাবে দেওয়া যেতে পারে, সেটা বলব না। আমরা একটি কথা বার বার বলছি, মেগা প্রজেক্ট দিয়ে উন্নয়নের ধুয়া তুলে দেশটাকে ফোকলা করে দিচ্ছে সরকার। কাদের পয়সা নিচ্ছেন?’

‘গতকাল না পরশুদিন একটা খবর পড়লাম, ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ফার্স্টেড ট্রেন হবে। দুটি চীনা কোম্পানি টাকা দেবে এবং সেটা দিয়ে তৈরি হবে। আর টাকা শোধ করতে আমার চাল, তেল, লবণ কিনতেও ভ্যাট দিতে হবে’— বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, “পৃথিবীর ও মানব সভ্যতার বিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে রাজনীতিকে এমন একটা জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে, যেখানে ‘ডার্টি’ বললে খুব একটা খারাপ কিছু বলা হয়। আমরা বাংলাদেশে দেখছি, আমাদের রাজনীতিকে কোথায়, কীভাবে, একেবারে অন্ধকার ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যেখানে কুপি বাতি দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না। একটা নোংরা নর্দমাতে গিয়ে উপস্থিত হয়েছে বাংলাদেশের রাজনীতি। আমাদের রাজনীতিবিদদের মধ্যে জ্ঞান চর্চা নেই বললেই চলে।”

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে। সবাই খুব হতাশ, আমার চোখে পানি আসে, কান্না আসে। কিন্তু আমার যে কথাটি মনে হয়, কোথায় সেই মানুষ, কোথায় সেই নেত্রী?— যিনি শুধুমাত্র গণতন্ত্রের জন্য এত বড় ত্যাগ স্বীকার করছেন। এটা খুবই কম পাওয়া যায় ।’

বিজ্ঞাপন

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায়ের সভাপতিত্বে মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, দলের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান, কৃষকদলের কেন্দ্রীয় নেতা মো. মাইনুল ইসলাম, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, জাতীয়তাবাদী প্রকাশনা সংস্থার প্রকাশক জহির তৃপ্তি।

সারাবাংলা/এজেড/পিটিএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button