আইন-বিচার

ক্রাউন সিমেন্ট কনক্রিটের চেয়ারম্যান-এমডির জামিন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ক্রাউন্ট সিমেন্ট কনক্রিট এবং বিল্ডিং প্রডাক্টস লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোল্লা মো. মঞ্জুর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। চুক্তি অনুযায়ী সিমেন্ট কনক্রিট সরবরাহ না করার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা করা হয়।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১৪ মার্চ) দুপুরে আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুর রহমানের মাধ্যমে আসামিরা আত্মসমর্পণ করে জামিনের প্রার্থনা করেন। বাদী পক্ষে অ্যাডভোকেট শাহাজাহান খানসহ প্রমুখ আইনজীবী জামিনের বিরোধীতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে পাঁচ হাজার টাকার মুচলেকায় ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মাদ জসিম আসামিদের জামিনের আদেশ দেন।

এর আগে গত ১১ জানুয়ারি পাঁচ জনের বিরুদ্ধে ঢাকা সিএমএম আদালতে মামলাটি দায়ের করেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মাদ বশীর আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

মামলার অপর ৩ আসামি হলেন- কোম্পানিটির সিনিয়র অফিসার মো. শরিফুল ইসলাম, সিনিয়র ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার এম ফেরদৌস আলম ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ মো. সুজন আলী। গত ১ মার্চ এ আসামিরা আত্মসমর্পণ করে জামিন পান।

অভিযোগে বলা হয়, বাদীর প্রতিষ্ঠান রাজধানীর ভাটারা থানাধীন ৯৭০৮, মাদানি এ্যাভিনিউস্থ ‘গ্রামীণ বাংলার অক্ষয় টাওয়ার’ বেজমেন্ট ফ্লোর ঢালাইয়ের জন্য চার হাজার ৫০০ পিএসআই স্টেন্থের রেডিমিক্স সরবরাহের চুক্তি হয়। সে অনুযায়ী, বাদী চুক্তি মূল্যের ১৭ লাখ ৮৫ হাজার টাকা প্রদান করেন। ঢালাইয়ের পরবর্তীতে অতিরিক্ত মাল বাবদ আরও ২ লাখ ৮০ হাজার টাকার একটি চেক প্রদান করেন। কিন্তু ঢালাইয়ের সময় রেডিমিক্সের গুনগতমান নিয়ে সন্দেহ হয় এবং আসামিদের লিখিত ও মৌখিকভাবে অবগত করা হয়।

বিজ্ঞাপন

পরবর্তীতে আসামিদের প্রস্তাব অনুযায়ী ‘বিল্ডার কোম্পানির মাধ্যমে বেজমেন্ট ফ্লোরের ৬টি কোর কেটে বুয়েট কর্তৃক পরীক্ষায়ও রেডিমিক্স চার হাজার পিএসআই স্টেন্থেরও নিম্মমানের ধরা পড়ে। বুয়েটের পরীক্ষায় নিম্মমানের রেডিমিক্সের রিপোর্ট পাওয়ার পর বাদীর প্রতিষ্ঠান লিগ্যাল নোটিশের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু আসামিরা কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় বাদী বাধ্য হয়ে মামলা করেন।

সারাবাংলা/এআই/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button