খেলা

দল বাড়ছে পরের আইপিএলে, মে’তে নিলাম

স্পোর্টস ডেস্ক

গুঞ্জন ছিল আগে থেকেই যে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের আইপিএলের ২০২২ সালের আসর থেকে দলের সংখ্যা বড়ছে। আর এবার সেই গুঞ্জনের ব্যাপারে জানিয়ে দিল সিদ্ধান্ত। এ বছরের মে মাসে সেই দল দুটির ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এমনটাই জানিয়েছেন বোর্ড অফ ক্রিকেট ফর কন্ট্রোল ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) একজন কর্মকর্তা।

বিজ্ঞাপন

২০২১ সালের আইপিএলের আসর মাঠে গড়াচ্ছে আগামি ৯ এপ্রিল থেকে। যেখানে অংশ নিচ্ছে ৮ টি দল। যদিও এ বছরের আইপিএল থেকেই ১০ দল অংশ গ্রহণের কথা ছিল। তবে করোনাভাইরাস মহামারিসহ নানান জটিলতার কারণে আর দল বাড়ায়নি বিসিসিআই।

তবে এবছর আইপিএলে দলের সংখ্যা না বাড়লেও আগামি আসর থেকে বাড়তে যাচ্ছে দল। এ ব্যাপারে গত ১৩ মার্চ আইপিএল আয়োজনের ব্যাপারে একটি বৈঠক করেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলিসহ বোর্ডের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। ওই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত হয় আগামি আইপিএল থেকেই বাড়ানো হবে দলের সংখ্যা।

বিজ্ঞাপন

বিসিসিআই’র উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তা এ ব্যাপারে জানান,  ‘আগামী বছর থেকে আইপিএলে ১০ দল দেখা যাবে। এ বছরের মে মাসে দল দুটির নিলাম প্রক্রিয়া ও চূড়ান্তকরণ করা হবে। মে মাসের মধ্যেই নতুন দুইটি ফ্র‍্যাঞ্চাইজির নাম জানা যাবে। দল দুইটি ঠিক হয়ে গেলে তারা চাইলে যথাযথ সময়ের মধ্যে নিজেদের প্রক্রিয়াভিত্তিক কাজ শুরু করে দিতে পারে।’

এ বছর আইপিএল নিয়েও বেশ সতর্কতা অবলম্বন করতে হচ্ছে বিসিসিআইকে। দিল্লী, আহমেদাবাদ, ব্যাঙ্গালোর, কলকাতা, চেন্নাই, মুম্বাই- এই ছয় ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে এবারের আইপিএল। করোনা পরিস্থিতি, পাঞ্জাবে চার মাসেরও বেশি সময় ধরে চলতে থাকা কৃষক আন্দোলন- এমন অনেক কারণে খেলা হবে না সানরাইজার্স হায়দরাবাদ, রাজস্থান রয়্যালস ও পাঞ্জাব কিংসের হোম ভেন্যুতে। অন্যান্য দলগুলো যেন বাড়তি সুবিধা না পায়, এজন্য কোনো দলের খেলাই হোম ভেন্যুতে রাখা হয়নি। অথচ প্রতি দলেই এমন ক্রিকেটার আছেন, যারা হয়ত এমন ভেন্যুতে খেলবেন যা রাজ্য দলের হিসাবে তাদের ঘরের মাঠ।

বিজ্ঞাপন

ভেন্যু নিয়ে অসন্তোষ জানিয়ে সরাসরি কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিই এখনো মুখ খুলেনি। তবে ভারতীয় গণমাধ্যমের দাবি, প্রায় সব ফ্র্যাঞ্চাইজিই ভেন্যু বিতরণের এই পদ্ধতিতে হতাশ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক বলেছেন, ‘দিল্লির ফ্র্যাঞ্চাইজিতে পৃথ্বী শাও, আজিঙ্কা রাহানে, শ্রেয়াস আইয়ার রয়েছেন, যারা মুম্বাইয়ের ক্রিকেটার। আর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে দিল্লি তাদের প্রথম তিন ম্যাচ খেলবে। পঞ্জাবের দলে লোকেশ রাহুল, মায়াঙ্ক আগারওয়াল এবং কোচ অনিল কুম্বলে রয়েছেন যারা বেঙ্গালোরের বাসিন্দা। আর এদিকে বেঙ্গালোরে পাঁচটি ম্যাচ খেলবে পাঞ্জাব। তারা কি এই পরিবেশের সঙ্গে পরিচিত নন? তাহলে কি তাদের ঘরোয়া পরিবেশের সুবিধা দেওয়া হলো না?’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button