আইন-বিচার

রেইনট্রি ধর্ষণ মামলায় তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্য

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর বনানীতে রেইনট্রি হোটেলে দুই শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল মতিন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১৪ মার্চ) বিকেলে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহারের আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ হয়। এরপর আগামী ৫ এপ্রিল পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য তারিখ ধার্য করেন ট্রাইব্যুনাল।

এ নিয়ে মামলাটিতে ৪৭ সাক্ষীর মধ্যে ২১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করেন ট্রাইব্যুনাল।

বিজ্ঞাপন

মামলার আসামিরা হলেন, সাফাত আহমেদ ও নাঈম আশরাফ, সাফাতের বন্ধু সাদমান সাকিফ, দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন। আসামিরা সকলেই জামিনে রয়েছেন।

২০১৭ সালের ৭ জুন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এমি পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেন।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগপত্রে আসামি সাফাত আহমেদ ও নাঈম আশরাফ ওরফে এইচ এম হালিমের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে। ২০১৮ সালের ১৩ জুলাই একই আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। ওই বছরে ১৯ জুন একই ট্রাইব্যুনাল আসামিদের বিরুদ্ধ অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। অপর আসামি সাফাত আহমেদের বন্ধু সাদমান সাকিফ, দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে ওই আইনের ৩০ ধারায় ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ করা হয়েছে।

সারাবাংলা/এআই/এসএসএ


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button