খেলা

লড়াই করে হারল জিম্বাবুয়ে

স্পোর্টস ডেস্ক

আফগানিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টটা জিম্বাবুয়ে যে হারতে যাচ্ছে সেটা অনুমান করা যাচ্ছিল ম্যাচের দ্বিতীয় দিনেই। হলোও তাই, তবে শন উইলিয়ামসের ব্যাটে লড়াইটা কিন্তু ভালোই করল আফ্রিকান দলটি। আবুধাবিতে দ্বিতীয় টেস্টে ৬ উইকেটে জিতেছে আফগানিস্তান। এই জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজটা ১-১ সমতায় শেষ হলো। সিরিজের প্রথম টেস্টে দুই দিনেই দশ উইকেটের ব্যবধানে হেরেছিল আফগানরা।

বিজ্ঞাপন

একটা সময় মনে হচ্ছিল এই টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে হারতে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ে। আফগানিস্তানের ৫৪৫ রানের টার্গেট পারি দিতে নেমে ফলোয়নে পড়া জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৪২ রানে হারিয়ে ফেলেছিল ৭ উইকেট। ইনিংস পরাজয় এড়াতে তখনো একশর বেশি রান লাগত আফ্রিকান দলটির। পেসার ডোনাল্ড টিরিপানোকে নিয়ে তারপরই কাব্যিক একটা প্রতিরোধ গড়ে তুললেন জিম্বাবুয়ান অধিনায়ক শন উইলিয়ামস।

দলের হার অবশ্য বাঁচাতে পারেননি। তবে উইলিয়ামসের এই লড়াই নিশ্চয় অনেকদিন মনে রাখছেন জিম্বাবুয়ানরা। অষ্টম উইকেট জুটিতে বোলার তিরিপানোকে নিয়ে তোলেন ১৮৭ রান। দেড়শ পেরিয়ে শেষ অবধি অপরাজিত ছিলেন উইলিয়ামস।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয় ইনিংসে ৭ উইকেটে ২৬৬ রান নিয়ে আজ পঞ্চম দিনের খেলা শুরু করেছিল জিম্বাবুয়ে। ১০৬ রানে অপরাজিত ছিলেন শন উইলিয়ামস, তার সঙ্গে ৬৩ রানে তিরিপানো। প্রথম ঘণ্টায় রশিদ খান, আমির হামজাদের কোনো সুযোগই দেননি দুজন। কিন্তু প্রথম সেশন শেষ হওয়ার আগ মুহূর্তে বড় এক ভুল করে বসলেন তিরিপানো। সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৫ রান দূরে থাকতে রশিদ খানকে চালাতে গিয়ে এলবিডব্লিউ হয়েছেন।

তারপর মুজারাবানিকে নিয়ে টিকে থাকার চেষ্টা করেছেন উইলিয়ামস। জিম্বাবুয়ান অধিনায়ক ঠিকই পেরেছেন, কিন্তু অপর প্রান্তে তিরিপানো হতে পারেননি কেউ। শেষ পর্যন্ত ৩৬৫ রানে থেমেছে জিম্বাবুয়ের দ্বিতীয় ইনিংস। ২৫৮ বল খেলে ১৬টি চারের সাহায্যে ৯৫ রান করেন তিরিপানো। শন উইলিয়ামস অপরাজিত ছিলেন ১৫১ রান করেন। ৩০৯ বল খেলে ১৩টি চার ১টি ছয়ে এই রান করেন জিম্বাবুয়ান দলপতি। আফগানিস্তানের হয়ে ১৩৭ রান খরচায় ৭ উইকেট তুলে নেন রশিদ খান।

বিজ্ঞাপন

জয়ের জন্য আফগানিস্তানের টার্গেট দাঁড়ায় ১০৮ রান। আফগানদের স্বস্তিতে এই রান তুলতে দেয়নি জিম্বাবুয়ে। শুরুতেই ওপেনার জাবেদ আহমাদিকে (৪) ফেরান মুজারাবানি। তারপর ইব্রাহিম জাদরানকে (২৯) সঙ্গে নিয়ে রহমত শাহ ৮১ রানের জুটি গড়ে আফগানদের জয়ের কাছাকাছি নেন। ১২ রানের ব্যবধানে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে আফগানদের আবারও অস্বস্তিতে ফেলেছিল জিম্বাবুয়ে। শেষ পর্যন্ত ৪ উইকেট হারিয়ে ১০৮ রনের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় আফগানিস্তান। রহমত শাহ ৭৬ বলে ৫৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

সারাবাংলা/এসএইচএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button