স্বাস্থ্য

‘অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বাড়ছে করোনা’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশে করোনায় মৃত্যুর হার হঠাৎ বেড়ে যাওয়ার ঘটনায় সরকার সতর্ক রয়েছে। তবে মানুষের স্বাস্থ্যবিধি না মানাই এর মূল কারণ। মানুষের মধ্যে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস কাজ করছে, এটি উদ্বেগজনক। এই অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বাড়ছে করোনা। সারাদেশে স্বাস্থ্যবিধি মানতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৫ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী নিয়ে বৈঠক শেষে এ কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমরা করোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন। ইতোমধ্যে হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানকে বর্তমান পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। আমাদের হাসপাতালগুলোতে ওষুধ ও অক্সিজেনের কোনও স্বল্পতা নেই।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলাচল করা, ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ না মানা, মাত্রাতিরিক্ত সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া, মাস্ক ব্যবহার না করা অন্যতম কারণ। নতুন করে যুক্ত হয়েছে করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে অনীহা।’

স্বাস্থ্যবিধি মানায় অনীহার কথা উল্লেখ করে জাহিদ মালেক বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন পর্যটন এলাকায় মানুষের ভিড় বাড়ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানও বেড়েছে। এসব জায়গায় স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো লক্ষণ নেই। এসব জায়গায় গেলে মনে হয় দেশে করোনা নেই।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘আড়াই মাস আগে যেখানে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে করোনা রোগী ছিল এক হাজার, এখন সেখানে ১৮০০ জন হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসকদের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যও বলা হয়েছে।’

মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে মোবাইল কোর্ট করার ব্যাপারে সুপারিশ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, প্রতিটি হাসপাতালে করোনা ইউনিটকে প্রস্তুত থাকতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

সভায় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নান, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ আলী নূর, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/এসবি/এসএসএ


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button