আইন-বিচার

ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ: ব্লাস্ট কর্মীর বিরুদ্ধে বিচার শুরু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: কক্সবাজারে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) দায়ের করা ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলায় ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগকারী ব্লাস্ট এনজিওকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে শুরু হলো মামলাটির আনুষ্ঠানিক বিচার কার্যক্রম।

বিজ্ঞাপন

গত ১১ মার্চ মামলাটি আমলে নিয়ে ১৫ মার্চ অভিযোগ গঠনের তারিখ নির্ধারণ করে আদালত। এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি সকালে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন অভিযুক্ত এনজিওকর্মী ফারজানা আক্তার। আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তার জামিন আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

সোমবার (১৫ মার্চ) দুপুরে বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, গত ৮ অক্টোবর টেকনাফ ব্যাটালিয়নের (২ বিজিবি) অধীনস্থ দমদমিয়া চেকপোস্টে অটোরিকশা যাত্রী ব্লাস্ট এনজিও কর্মী ফারজানা আক্তারকে বিজিবির নারী সদস্যরা তল্লাশি করলে, পরবর্তীতে সে বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ এনে অপপ্রচার চালায়। এ অপপ্রচারের প্রেক্ষিতে গত বছরের ১০ নভেম্বর টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২বিজিবি) কর্তৃক কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উক্ত ফারজানা আক্তারের বিরুদ্ধে ফৌজদারি ৫০০ ধারায় ১০০ কোটি টাকার মানহানীর মামলা দায়ের করা হয়। গত ২২ নভেম্বর টেকনাফ থানার ওসি (অপারেশনস) ইন্সপেক্টর শরিফুল কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগকারী ব্লাস্ট এনজিও কর্মীর বিরুদ্ধে বিজিবির চাঞ্চল্যকর মানহানি মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

তদন্ত প্রতিবেদনে ধর্ষণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি, বিধায় গত ২২ নভেম্বর শুনানি শেষে ১৪ জানুয়ারি আদালতে হাজির হওয়ার জন্য আসামির বিরুদ্ধে সমন জারি করে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহা. হেলাল উদ্দিনের আদালত।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইউজে/এএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button