সারাদেশ

মোদি এলে শাপলা চত্বরে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি হেফাজতের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

সুনামগঞ্জ: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে এলে শাপলা চত্বরে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনাইদ আহমদ বাবুনগরী।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৫ মার্চ) বিকালে দিরাই পৌর এলাকার স্টেডিয়াম মাঠে শানে রিসালাত সম্মেলন লক্ষাধিক মানুষের সামনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন। হেফাজত ইসলাম দিরাই উপজেলা শাখার উদ্যোগে এই আয়োজন করা হয়।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির জুনাইদ আহমদ বাবুনগরী বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে আসতে পারবে না। মোদি ইসলাম ধর্মকে ধ্বংস করতে চায়। তাই আজ এই লক্ষাধিক মানুষের সামনে বলে দিতে চাই যে, যদি মোদি বাংলাদেশে আসার চেষ্টা করে তাহলে দেশের ১৬ কোটি মুসলমান চুপ করে বসে থাকবে না। কাফনের কাপড় নিয়ে শাপলা চত্বরে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা করব।’

বিজ্ঞাপন

হেফাজত নেতা বলেন, ‘ওই কসাই মোদি গুজরাটে, আহমদাবাদে মুসলমানদের কচু আর গাজরের মতো কেটেছে। এমনকি ভারতের অনেক প্রাচীন মসজিদকে ভেঙে ফেলেছে। মোদি যদি সারা বিশ্বের মুসলমানদের কাছে ক্ষমা না চায়, তাহলে মোদি কোনোদিনও বাংলাদেশে আসতে পারবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে ইসলামকে নির্মূল করার জন্য একটি কুচক্রী মহল উঠেপরে লেগেছে। যারা ইসলামের বিরোধিতা করে তারা স্বাধীনতারও বিরোধিতা করে, এরা শুধু ইসলামের শত্রু না, স্বাধীনতারও শত্রু। আমরা বলে দিতে চাই, যারা ইসলামকে ধংস করতে চায়, নির্মূল করতে চায়, তারাই ধংস হয়ে যাবে।’

বিজ্ঞাপন

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির নায়েবে আমীর আল্লামা নুরুল ইসলাম খান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব জুনাইদ আল-হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হক, যুগ্ম মহাসচিব নাছির উদ্দিন মুনিরসহ হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতারা।

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা আর ইসলাম একটার সাথে আরেকটা জড়িয়ে আছে। বাংলাদেশে ইসলাম বিপন্ন হলে স্বাধীনতা বিপন্ন হবে। তাই বাংলাদেশে যারাই ইসলাম এমনকি আমাদের প্রিয় নবীকে নিয়ে কটূক্তি করবে তাদের জন্য সংসদে সর্বোচ্চ আইন মৃত্যুদণ্ড করতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমও


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button