জাতীয়

ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের সংযোগস্থল হচ্ছে বঙ্গোপসাগর: জাপান

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বঙ্গোপসাগর ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের সংযোগস্থল হতে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। এর মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোকে আরও ঘনিষ্ট হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৫ মার্চ) বে অফ বেঙ্গল সংগঠনের আয়োজনে ‘বঙ্গোপসাগর ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের সংযোগস্থল’ শীর্ষক সেমিনারে জাপানের রাষ্ট্রদূত এসব কথা বলেন। ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন, জাপান মিশন, এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক, বিশ্ব ব্যাংক এবং ইন্ডিপেন্ডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয় সেমিনারটি আয়োজনে সহযোগিতা করে। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহহর রিজভীসহ একাধিক কূটনীতিক উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় ইতো নাওকি বলেন, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের জন্য বঙ্গোপসাগর খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেননা বঙ্গোপসাগরই হচ্ছে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের সংযোগস্থল। এই উদ্যোগের মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোকে আরও ঘনিষ্ট করবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, বে অফ বেঙ্গল ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রোথ বেল্ট বা বিগ বি প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে এই অঞ্চলের দেশগুলোর অর্থনৈতিক উন্নয়ন হবে। যেমন- মাতার বাড়ি গভীর সমুদ্র বন্দর, ঢাকা এমআরটি এবং হযরত শাহ জালাল বিমানকবন্দরের সংস্কার বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রভাব ফেলবে।

জাপানের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা জাইকার সাবেক প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক তানাকা আকিহিতো বলেন, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল বিশ্বের অর্থনৈতিক খাতের মূল কেন্দ্রে পরিণত হবে। যা ঐতিহাসিক ভিত্তির ওপর ভর করে ইন্দো-প্যাসিফিক কৌশল বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। শান্তি প্রতিষ্ঠা করাই এই কৌশলের অন্যতম লক্ষ্য।

বিজ্ঞাপন

জাপানের শাসাকাওয়া শান্তি ফাউন্ডেশনের জ্যেষ্ঠ গবেষণা ফেলো নিশিডা ইপিতা বলেন, বঙ্গোপসাগর হচ্ছে মূলত বিশ্বের পূর্বদিকে প্রবেশদ্বার।

সারাবাংলা/জেআইএল/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button