সারাদেশ

এসএসসি পরীক্ষার্থীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

রাজবাড়ী: রাজবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় ছয় জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) দুপুরে রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শারমিন নিগার এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন— রাজবাড়ী শহরের ড্রাই আইস ফ্যাকটরি এলাকার মৃত ইউনুচ খাঁর ছেলে মো. সুজন (২২), একই এলাকার আক্তার ফকিরের ছেলে আল আমিন ফকির (২৪), মৃত নুর আলী ফকিরের ছেলে মোস্তফা ফকির (২৫), নাড়ু কুমার সরকারের ছেলে আকাশ সরকার (২৪), মৃত আবুল বেপারীর ছেলে বাবু বেপারী ওরফে কমান্ডার (২৮) ও বড় লক্ষীপুর এলাকার খালেক প্রামাণিকের ছেলে ফজলুর রহমান (৩২)।

বিজ্ঞাপন

রায় ঘোষণার সময় মামলার তিন নম্বর আসামি মোস্তফা ফকির ছাড়া বাকি আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট উমা সেন জানান, ২০১৯ সালে রাজবাড়ী সদরের জৌকুড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষার্থী হিসেবে প্রস্তুতি নিচ্ছিল ওই শিক্ষার্থী। তিন-চার মাস আগে ড্রাই আইস ফ্যাকটরি এলাকার সুজনের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং মোবাইল ফোনে কথাবার্তা হয়।

বিজ্ঞাপন

পিপি জানান, একই বছরের ২৮ জানুয়ারি বিকেল ৩টার দিকে রাজবাড়ী বাজার থেকে রেল লাইন দিয়ে হেঁটে মহাদেবপুর এলাকার নিজ বাড়ি ফেরার পথে সুজনের সঙ্গে দেখা হয় তার। ওই সময় সুজন তাকে ড্রাইস ফ্যাকটরি এলাকার আমিরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির পরিত্যক্ত মেসে নিয়ে যায়। সেখানে বিয়ের প্রলোভনে সুজন তাকে ধর্ষণ করেন। পরে পালাক্রমে সুজনের বন্ধুরাও ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন।

এরপর ওই ছাত্রী বাদী হয়ে সুজনকে প্রধান আসামি করে ছয় জনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। দীর্ঘ সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত আজ এ রায় দেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/টিআর


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button