রাজধানী

তেজগাঁওয়ে শটগানের গুলিতে ৮ গার্মেন্টসকর্মী আহত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর তেজগাঁও সাতরাস্তা এলাকায় অ্যাপারেলস স্টিচ লিমিটেড নামে গার্মেন্টসের সামনে কর্মচারীদের আন্দোলনে ৯ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে পুলিশের শটগানের গুলিতে আহত হয়েছেন আট জন। এক পুলিশ সদ্যস্যও আহত হয়েছেন। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার ( ১৬ মার্চ) তেজগাঁও এলাকার তিব্বত মোড়ে রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করে গার্মেন্টসকর্মীরা। তেজাগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিল্পব কিশোর শীল এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

আহতরা হলেন- অঞ্জনা বেগম, আনজিলা আক্তার, হোসনা খাতুন, পারভিন আক্তার, কাজল রেখা, হাসিনা বেগম, আলেয়া বেগম ও নাহিদা। এ ঘটনায় আহত পুলিশ সদস্যেদের নাম অলিউর রহমান (২৪)। তিনি পিওএম পশ্চিম বিভাগে কর্মরত।

বিজ্ঞাপন

আহতরা জানান, প্রতিদিনের ন্যায় আজ (মঙ্গলবার) সকাল ৮টার দিকে তারা গার্মেন্টসে যায়। সেখানে গিয়ে দেখেন গার্মেন্টসের প্রধান ফটকের তালা দেওয়া। এরপর তাদের গার্মেন্টসের প্রায় ১২শ কর্মী ও আশপাশের আরও কয়েকটি গার্মেন্টসের কর্মী মিলে এ্যাপারেল স্টিচের সামনে রাস্তায় অবস্থান করে। পরবর্তীতে পুলিশ সেখানে কাঁদানে গ্যাস মারে। এরপর সবাই সেখান থেকে সরে যাওয়া শুরু করলেও পুলিশ শটগানের গুলি চালায়। এতে তারা আহত হয়। এ ঘটনায় আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তাদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় ওসি বিল্পব কিশোর শীল জানান, বিভিন্ন বেতন-ভাতার দাবিতে তেজগাঁও তিব্বত মোড়ে রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করছিল গার্মেন্টস কর্মীরা। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত তাদের এই আন্দোলন চলে। পরে এক পর্যায়ে তাকেরকে রাস্তা ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়। তারা রাস্তা না ছেড়ে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ছুঁড়ে। পরে পুলিশ তাদের ওপর টিয়ারশেল ছুঁড়ে। পরবর্তিতে শটগানের ফায়ার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. মোহাম্মদ আলাউদ্দিন জানান, আমাদের এখানে আট জন আহত অবস্থায় এসেছে। এদের মধ্যে আট জনের শরীরে শটগানের গুলি রয়েছে। বাকি একজনের শরীরে সামান্য আঘাত রয়েছে। সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে এদের কেউ গুরুতর নয়।

সারাবাংলা /এসএসআর/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button