আইন-বিচার

পিপলস লিজিংয়ের ১২২ ঋণ খেলাপির বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আদালতের তলব আদেশের পরও উপস্থিত না হওয়ায় পিপলস লিজিংয়ের ১২২ ঋণ খেলাপির বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১৪ মার্চ) বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ তাদের বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে লিখিত এই আদেশ প্রকাশ করেছেন।

এর আগে গত ২১ জানুয়ারি পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে পাঁচ লাখ টাকা ও তার চেয়ে বেশি অর্থঋণ নিয়ে খেলাপি হওয়া এমন ২৮০ ব্যক্তিকে তলব করেছিলেন হাইকোর্ট।

বিজ্ঞাপন

আদালতের তলবে গত ২৩ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি ১৫৮ জন ঋণখেলাপি হাইকোর্টে হাজির হয়েছিলেন। বাকিদের পর্যায়ক্রমে আদালতে হাজির হয়ে ঋণ ও ঋণ পরিশোধের বিষয়ে ব্যাখ্যা জানাতে বলা হয়। কিন্তু ১২২ জন আদালতের আদেশের পরও হাজির হননি।

২১ জানুয়ারি অবসায়ন প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকা পিপলস লিজিংয়ের সাময়িক অবসায়ক (প্রবেশনাল লিকুইডেটর) মো. আসাদুজ্জামান খানের পক্ষে আদালতে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মেজবাহুর রহমান। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী কাজী এরশাদুল আলম।

বিজ্ঞাপন

গত বছরের নভেম্বর মাসে কোম্পানি আদালত পিপলস লিজিংয়ের ঋণগ্রহীতাদের তালিকা দাখিল করতে বলেন।

এ বিষয়ে আইনজীবী মেজবাহুর রহমান জানান, তথ্য অনুসারে ঋণগ্রহীতা ৫০০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের তালিকা গত বছরের ২৩ নভেম্বর আদালতে দাখিল করা হয়। ওই ঋণগ্রহীতাদের তালিকা থেকে পাঁচ লাখ টাকা ও তার বেশি অর্থঋণ নিয়ে খেলাপি হওয়া ২৮০ জনকে কারণ দর্শাতে বলেছেন আদালতে। এ বিষয়ে ব্যাখ্যা জানতে তাদের তলব করেন।

বিজ্ঞাপন

গত বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত ঋণসহ ২৮০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে পিপলস লিজিংয়ের পাওনা ১ হাজার ৬৫৫ কোটি টাকার বেশি। এই ঋণ পরিশোধের বিষয়ে নিজদের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে ২৮০ ব্যক্তিকে গত ২৩ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছিল।

সারাবাংলা/কেআইএফ/পিটিএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button