সারাদেশ

টঙ্গীতে ট্রাফিক পুলিশ-চিকিৎসকের মারামারি

লোকাল করেসপন্ডেন্ট

টঙ্গী (গাজীপুর): টঙ্গীতে ট্রাফিক পুলিশ ও এক চিকিৎসকের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় পুলিশের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক মাসুদ রানা ও ট্রাফিক পুলিশের এটিএসআই সাইফুল ইসলামের মধ্যে মারামারি ঘটে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) দুপুরে স্টেশন রোড এলাকায় দায়িত্বরত পুলিশের এটিএসআই সাইফুল ইসলামের সঙ্গে চিকিৎসক মাসুদ রানার এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টঙ্গীর শহিদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক মাসুদ রানা হাসপাতালের দায়িত্ব শেষ করে মঙ্গলবার দুপুরে তার আরিচপুরের বাসায় ফিরছিলেন। এ সময় তিনি হাসপাতালের গেটে পৌঁছলে টঙ্গী-কালীগঞ্জ রোডে একটি অটোরিকশা তাকে জোরে ধাক্কা দেয়। এতে করে তিনি উল্টে রাস্তায় পড়ে গিয়ে ব্যাথা পান।

বিজ্ঞাপন

আরও জানা যায়, এ সময় মাসুদ রানা ক্ষিপ্ত হয়ে অটোচালক নাসির উদ্দিনকে ধরে মারধর শুরু করেন। পরে সড়কে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের এটিএসআই সাইফুল ইসলাম এগিয়ে গিয়ে অটোচালককে উদ্ধার করতে যান। এতে করে চিকিসৎক মাসুদের সঙ্গে ট্রাফিক পুলিশ সাইফুলের বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে চিকিৎসক মাসুদ রানা ট্রাফিক পুলিশকে ধাক্কা দেন। এ সময় সাইফুল তার হাতে থাকা লাঠি দিয়ে মাসুদকে কয়েকটি আঘাত করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মাসুদও পুলিশ সদস্যকে মারধর করে এবং গায়ের ইউনিফর্ম ছিঁড়ে ফেলেন। খবর পেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

টঙ্গী শহিদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক মাসুদ রানা বলেন, ডাক্তার পরিচয় দেওয়ার পরও সাইফুল ইসলাম গায়ে হাত তুলেন। এই ঘটনার উপযুক্ত বিচার চাই।

বিজ্ঞাপন

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাবেদ মাসুদ বলেন, এটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। ঘটনাটির সমাধান হয়ে গেছে।

সারাবাংলা/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button