সারাদেশ

বাড়ির মালিককে হত্যার অভিযোগে ভায়াটিয়া গ্রেফতার

ডিস্ট্রিক করেসপন্ডেন্ট

জয়পুরহাট: জেলার পৌর শহরের রুপনগর এলাকায় বাড়ির মালিক শেফালি বেওয়াকে (৬৫) হত্যার অভিযোগে তার বাড়ির ভাড়াটিয়া ঝর্ণা আক্তার নিলাকে (২১) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) সকালে রুপনগর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতারকৃত ঝর্না আক্তার কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পরমতলা গ্রামের মুনসুর খাঁনের স্ত্রী। জয়পুরহাট থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) হাবিবুর রহমান হাবিব এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, জয়পুরহাট শহরের রুপনগর এলাকার মৃত সোলায়মান আলীর স্ত্রী শেফালি বেওয়া ২ মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পর নিজ বাড়িতে একা বসবাস করতেন। ওই বৃদ্ধার বাড়িতে বেশ কয়েক বছর থেকে নিলা একাই ভাড়াটে হিসেবে বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি ঝর্না জর্ডানে যাওয়ার জন্য বাড়ির মালিক শেফালির নিকট থেকে টাকা চান। গত ১৩ মার্চ শেফালি একটি গরু বিক্রয়ের জন্য বায়না হিসেবে ৩০ হাজার টাকা নেন। ওই দিনই রাত সাড়ে ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়। শেফালি স্ট্রোক করে মারা গেছেন বলে পরদিন সকালে বিষয়টি বৃদ্ধার পরিবারকে জানান ঝর্না।

বিজ্ঞাপন

স্বাভাবিক মৃত্যু জেনে পারিবারিকভাবে শেফালির মৃতদেহ ওই দিন দাফন করা হয়। পরে ঝর্নার গতিবিধি ও আচরণ দেখে সন্দেহ হলে স্থানীয় লোকজন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে এক পর্যায়ে ঝর্না ১৫ মার্চ রাতের ঘটনা স্বীকার করে বলেন, বিদেশ যাওয়ার টাকার জন্য ওই ৩০ হাজার টাকা নিতে গেলে বৃদ্ধা শেফালি বাধা দেন। এতে মসলা বাটার নোড়া দিয়ে মাথা ও মুখে আঘাত করে বৃদ্ধা শেফালিকে হত্যা করেন। এরপর দিন ১৬ মার্চ সকালে স্থানীয়রা ঝর্নাকে আটক করে পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে ৩০ হাজার টাকাসহ ঝর্নাকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে ইন্সপেক্টর হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, এ ব্যাপারে শেফালির ভাই জালাল শেখ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। আইনগত ব্যবস্থাসহ আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button