খেলা

দুই লেগেই অ্যাটলেটিকোকে হারিয়ে কোয়ার্টারে চেলসি

স্পোর্টস ডেস্ক

দীর্ঘ আট বছর পর উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে চেলসি। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে শেষ ষোলর দুই লেগেই হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে অল ব্লুজরা। প্রথম লেগে অ্যাটলেটিকোর ঘরের মাঠ থেকে ১-০ ব্যবধানে জিতে আসা চেলসি ফিরতি লেগে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ২-০ গোলের ব্যবধানে জিতে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে থমাস তুখেলের দল।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের শুরু থেকে অধিকাংশ সময় বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের ওপর চাপ ধরে রাখলেও প্রথমার্ধে খুব বেশি সুযোগ তৈরি করতে পারেনি চেলসি। এ সময় তাদের রক্ষণে তেমন ভীতি ছড়াতে পারেনি লা লিগার পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা অ্যাটলেটিকোও। ২৬তম মিনিটে চেলসির ডি বক্সে ইয়ানিক কারাসকো ডিফেন্ডার সেজার আজপিলিকুয়েটার হালকা বাধায় পড়ে গেলে পেনাল্টির জোরালো আবেদন করে অ্যাটলেটিকো। তবে রেফারির সাড়া মেলেনি।

এর আট মিনিট পর প্রতি-আক্রমণে এগিয়ে যায় চেলসি। স্বদেশি মিডফিল্ডার কাই হাভার্টজের বাড়ানো বল ধরে জার্মান ফরোয়ার্ড টিমো ভেরনার বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে উঠে ডি-বক্সে ডানে পাস দেন। আর নিখুঁত শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন মরক্কোর মিডফিল্ডার হাকিম জিয়েচ। প্রথমার্ধে ওই এক গোলের ব্যবধানেই এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় চেলসি।

বিজ্ঞাপন

বিরতি থেকে ফিরেও আক্রমণ ধরে রাখে চেলসি। তবে কিছুতেই গোলের দেখা মিলছিল না। অন্যদিকে অ্যাটলেটিকোও যেন এদিন নিজেদের হারিয়ে খুঁজছিলেন। তেমন কোনো আক্রমণই করতে পারেনি যাতে কাঁপন ধরবে ব্লুজদের রক্ষণে।

গোলের দেখা পাওয়া তো দূরের কথা উলটো ম্যাচের ৮১ মিনিটের মাথায় স্টেফান স্যাভিচ অ্যান্তোনিও রুডিগারকে কনুই দিয়ে আঘাত করে লাল কার্ড দেখেন। আর ১০ জনের দলে পরিণত হয় অ্যাটলেটিকো।

বিজ্ঞাপন

এরপর ম্যাচের শেষ দিকে এসে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এমারসন। আর তাতেই শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে চেলসি। দুই লেগ মিলিয়ে ৩-০ ব্যবধানে জিতে দীর্ঘ আট বছর পর উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটেও জায়গা করে নিল লন্ডনের ক্লাবটি।

দিনের অন্য ম্যাচে লাৎসিওকে ২-১ গোলে হারিয়ে দুই লেগ মিলিয়ে ৬-২ ব্যবধানে এগিয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছে শিরোপাধারী বায়ার্ন মিউনিখ। শেষ আটের বাকি দলগুলো হলো-পিএসজি, রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল, পোর্তো ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। আগামী শুক্রবার হবে কোয়ার্টার-ফাইনাল ও সেমি-ফাইনালের ড্র।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button