সারাদেশ

যশোরে ঝগড়ার সময় স্ত্রীর লাঠির আঘাতে আহত স্বামীর মৃত্যু

লোকাল করেসপন্ডেন্ট

বেনাপোল (যশোর): জেলার ঝিকরগাছায় স্ত্রীর লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত মুস্তাকিন হোসেন সুমন (২৮) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

স্ত্রী মিনা খাতুন (২৬) একই উপজেলার ঘোড়াদহ গ্রামের নিহান শেখের মেয়ে। নিহত মুস্তাকিন ঝিকরগাছা উপজেলার মাগুরা ইউনিয়নের ফুলবাড়ি গ্রামের দাউদ হোসেনের ছেলে।

মুস্তাকিন-মিনা দম্পতির ২ ও ৮ বছর বয়সী দু’টি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ঝিকরগাছা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘গত ১৪ মার্চ দুপুরে মিনা খাতুনের ভাই-বোন ও মা তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। এদিন বিকেলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার সময় মিনা তার স্বামীর মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করলে তিনি আহত হন। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে যশোরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়।’

পরে অবস্থার অবনতি হলে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানকার চিকিৎসক সুমনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করলে বুধবার (১৭ মার্চ) বিকেলে তার মৃত্যু হয়। রাতে সুমনের মরদেহ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়।

বিজ্ঞাপন

মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ওসি আরও বলেন, বুধবার (১৭ মার্চ) সকালে সুমনের মৃত্যুর সংবাদ পেলে ঘাতক মিনা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সেময় স্থানীয়রা তাকে ধরে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ মিনাকে আটক করে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমও


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button