খেলা

৬ ম্যাচে বেনজেমার ৮ গোলে চাঙ্গা রিয়াল

স্পোর্টস ডেস্ক

এতদিন স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদের পঞ্চম সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়ে ছিলেন করিম বেনজেমা। এবারে কিংবদনিত সান্তিলানাকে টপকে এই তালিকায় উঠে এসেছেন চারে। শনিবার রাতে সেল্ট ভিগোর বিপক্ষে জোড়া গোল করে রিয়াল মাদ্রিদকে ৩-১ ব্যবধানের জয় নেনে দিয়েছেন এই ফ্রেঞ্চ স্ট্রাইকার। আর সেই সঙ্গে গড়েছেন নতুন এই রেকর্ড। সেল্টার বিপক্ষে জয়ের রাতে বার্সেলোনাকে আরও একবার টপকে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে উঠে এসেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ছয় ম্যাচে গোল পেলেন বেনজেমা। চোটে পড়ার আগে টানা দুই ম্যাচে জালের দেখা পেয়েছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বেনজেমা জোড়া গোল করে এদিন রিয়াল মাদ্রিদ কিংবদন্তি কার্লোস সান্তিলানাকে টপকে লা লিগায় লস ব্ল্যাঙ্কোসদের ইতিহাসের চতুর্থ সর্বোচ্চ গোলদাতা বনে গেছেন। ফ্রেঞ্চ এই স্ট্রাইকারের সামনে আছেন কেবল তিন কিংবদন্তি ফুটবলার। শীর্ষে আছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (৩১২ গোল), রাউল গঞ্জালেজ (২২৮) এবং আলফ্রেড ডি স্টেফানো (২১৬)। লা লিগায় বেনজেমার মোট গোল সংখ্যা এখন ১৮৬টি।

মাদ্রিদের সাদা জার্সিতে এটি বেনজেমার ১২তম মৌসুম। ২০০৯ সালের আগস্টে রিয়ালে নাম লেখানোর পর লা লিগায় তিনি খেলেছেন মোট ৩৭৩টি ম্যাচ। চলতি মৌসুমে লা লিগায় ১৭ গোলের পাশাপাশি সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে তিনি করেছেন মোট ২৩টি গোল। আর তার এমন পারফরম্যান্সেই লা লিগা ও চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপার দৌড়ে এখনও লড়াই করে যাচ্ছে গ্যালাক্টিকোরা।

বিজ্ঞাপন

এই তো আটালান্টার বিপক্ষে ঘরের মাঠে গোল করে চ্যাম্পিয়নস লিগে ৭০ গোল করার মাইলফলক স্পর্শ করেন বেনজেমা। ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাকর এই টুর্নামেন্টে তার আগে কেবল চারজনই এই রেকর্ড স্পর্শ করতে পেরেছেন। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, লিওনেল মেসি, রাউল গঞ্জালেজ আর রবার্ট লেভান্ডোফস্কির পর পঞ্চম খেলোয়াড় তিনিই।

লিগে এই নিয়ে টানা আট ও সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ১০ ম্যাচ অপরাজিত রিয়াল। আট জয় ও দুই ড্র’তে লিগ টেবিলে বার্সেলোনার চেয়ে তারা এগিয়ে গেল ১ পয়েন্টে। আর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের চেয়ে এক পয়েন্টের ব্যবধানে পিছিয়ে রইলো। যদিও বার্সেলোনা ও অ্যাটলেটিকো একটি করে ম্যাচ কম খেলেছে।

বিজ্ঞাপন

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা করিম বেনজেমা রিয়ালকে ম্যাচের ২০মিনিটেই এগিয়ে নেন। টনি ক্রুসের পাস ডি বক্সে ধরে কোনাকুনি শটে ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি।

টনি ক্রুসের পাস থেকে ম্যাচের সময় আধা ঘণ্টা ছুঁতেই নিজের এবং দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন বেনজেমা। চলতি মৌসুমে লা লিগায় এটি বেনজেমার ১৭তম গোল।

বিজ্ঞাপন

প্রথমার্ধের শেষের দিকে ৪০তম মিনিটে ব্যবধান কমিয়ে লড়াই জমিয়ে তোলে সেল্টা। বাঁ দিক থেকে ড্যানিশ সুয়ারেজের ক্রসে হেডে গোলটি করেন মিনা। দ্বিতীয়ার্ধে বল দখলে এগিয়ে থাকার পাশাপাশি আক্রমণেও ভীতি ছড়ানো সেল্টা ৮২তম মিনিটে ভাগ্যের ফেরে গোল পায়নি। আসপাসের দারুণ ফ্রি-কিকে বল বাধা পায় পোস্টে।

তবে ম্যাচের শেষ দিকে এসে প্রতি-আক্রমণে হ্যাটট্রিক হতে পারতো বেনজেমার; কিন্তু ডি-বক্সে গোল করার মতো পজিশনে থেকেও আরও নিশ্চিত করতে গোলমুখে পাস দেন বেনজেমা। ছুটে এসে হাঁটুর টোকায় শুধু বলের দিক পাল্টে দেন বদলি নামা অ্যাসেন্সিও। আর তাতেই রিয়ালের ৩-১ গোলের ব্যবধানের জয় নিশ্চিত।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button