খেলা

বোলারদের লড়াই করার পুঁজি দিতে চান মিঠুনরা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ডানেডিনে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি বাংলাদেশ। মাত্র ১৩১ রানে গুটিয়ে গিয়ে ৮ উইকেটে ম্যাচ হারা বাংলাদেশ সিরিজে ১-০ তে পিছিয়ে। অর্থাৎ দ্বিতীয় ওয়ানডে হারলেই সিরিজ হার। নিশ্চয় সেটা চাইবে না তামিম ইকবালের দল। ম্যাচের আগে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন জানালেন, ঘুরে দাঁড়াতে চায় বাংলাদেশ। বোলারদের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি দেওয়ার লক্ষ্যে রান করতে চান ব্যাটসম্যানরা।

বিজ্ঞাপন

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে এর আগে কখনোই দলটিকে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। এবার যাওয়ার পর থেকেই সেই আক্ষেপ ঘুচানোর কথা বলছেন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। জোর দিয়ে এই কথা বলার বড় কারণ বাংলাদেশের শক্ত পেস আক্রমণ। নিউজিল্যান্ডের উইকেটে ভালো করতে হলে অবশ্যই পেস ডিপার্টমেন্টকে ভালো করতে হবে। আর বাংলাদেশও দারুণ একটি পেস আক্রমণ নিয়ে এবার নিউজিল্যান্ড সফরে গেছে। কিন্তু শুধু ভালো পেস আক্রমণ থাকলে তো চলবে না, তাদের লড়াই করা মতো শক্ত একটা স্কোরও গড়তে হবে। মাত্র ১৩১ রানে গুটিয়ে গিয়ে প্রথম ওয়ানডেতে সেখানে পুরোপুরি ব্যর্থ ব্যাসটম্যানরা। মিঠুন বললেন, দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বোলারদের লড়াই করার মতো পুঁজি দিতে চায় ব্যাটিং ইউনিট।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) ভোরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে খেলতে নামবে বাংলাদেশ দল। তার আগে সংবাদমাধ্যমকে মিঠুন বলেছেন, ‘প্রথমত একটি বোলিং ইউনিট ভালো করতে হলে অবশ্যই ব্যাটসম্যানদের একটা টার্গেট দিতে হবে। গত ম্যাচে যে রানের টার্গেটটা ছিল ওদের (নিউজিল্যান্ড) ওইরকম কোন চাপ ছিল না। তারা নেমেই সব ধরণের শট খেলতে পেরেছে। কারণ তারা জানে দুই-তিনটি উইকেট পড়লেও এই রান তাড়া করতে পারবে, যে কারণে তারা ভয়হীন ক্রিকেট খেলেছে। আমি মনে করি অন্যবারের চেয়ে আমাদের এবারের বোলিং অ্যাটাক যথেষ্ট ভালো। আমরা সবাই ওদের উপর ভরসা করতে পারি। ব্যাটসম্যানরা যদি একটা বড় টোটাল দাঁড় করাতে পারি তাহলে ওরা কতটুকু ক্যাপাবল সেটি প্রমাণ করতে পারবে।’

বিজ্ঞাপন

বোলারদের লড়াই করার পুঁজি দিতে চান মিঠুনরা

বড় টোটাল বলতে কতো রান? মিঠুন একটা ধারনাও দিয়েছেন, ‘ব্যাটসম্যানদের আরেকটু দায়িত্বশীল হতে হবে। উপর থেকে নিচ পর্যন্ত- সবার জায়গা থেকে সেরাটা দিতে হবে। সবসময় একটা জিনিস নিয়ে কথা হয়, এখানে প্রথম ১০ ওভারেই ম্যাচ আমাদের হাত থেকে বের হয়ে যায় বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে। নিউজিল্যান্ডের উইকেটে সাধারণত হাই-স্কোরিং ম্যাচ হয়। অবশ্যই আমাদের ২৬০-২৭০ না করলে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইট দেওয়াটা কঠিন।’

বিজ্ঞাপন

মিঠুন বলেন, ‘অবশ্যই চাইব, আগের ম্যাচের সবকিছু ভুলে গিয়ে সামনের ম্যাচে সেরাটা দেওয়ার। অন্তত আমাদের ম্যাচ জেতার জন্য যতটুকু করা দরকার এবং বোলাররা যাতে একটু নির্ভার থাকতে পারে অন্তত এমন একটা টার্গেট দেওয়ার।’

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় ওয়ানডে শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায়, ক্রাইস্টচার্চে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএইচএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button