অর্থ-বাণিজ্য

প্রতিবন্ধীদের সঠিক সংখ্যা জানতে চায় সরকার

জোসনা জামান, স্টাফ করেসপনডেন্ট

ঢাকা: দেশের প্রতিবন্ধী অংশ যাতে পিছিয়ে না থাকে, এজন্য নানান কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এবার তাদের সঠিক সংখ্যাটা জানতে চায় সরকার। ইতোমধ্যেই ‘জাতীয় প্রতিবন্ধী ব্যক্তি জরিপ’ পরিচালনার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, এই প্রকল্প নিয়ে গত ৩ মার্চ অনুষ্ঠিত হয় স্টিয়ারিং কমিটির তৃতীয় সভা। এতে সভাপতিত্ব করেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী। গত ১৪ মার্চ ওই সভার কার্যবিবরণী জারি করা হয়েছে। সেটি চলে এসেছে সারাবাংলার হাতে।

পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম সারাবাংলাকে বলেন, যেকোনো জরিপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সঠিকভাবে জরিপ পরিচালনা করা হলে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা নিতে সুবিধা হয়। এজন্য মাঠ পর্যায়ের তথ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে সতর্ক হতে হবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, প্রতিবন্ধীরা এই সমাজেরই অংশ। তাদের মূল ধারায় আনতে সঠিক জরিপ পরিচালনা জরুরি। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) মূল কথা, কাউকে পেছনে ফেলে নয়। অর্থাৎ সবাইকে সঙ্গে নিয়েই উন্নয়নের পথে এগিয়ে যেতে হবে।

জানা গেছে, এই জরিপের প্রধান উদ্দেশ্য হলো প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় পরিসংখ্যান প্রস্তুত করা। এর মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নের মূল ধারায় নিয়ে আসা এবং তাদের জীবনের সকল ক্ষেত্রে সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করা।

বিজ্ঞাপন

প্রকল্পের ব্যয় এবং আর্থিক ও বাস্তব অগ্রগতি: স্টিয়ারিং কমিটির সভার কার্যবিবরণীতে বলা হয়েছে ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রকল্পের আওতায় ব্যয় হয়েছে ২৭ লাখ ৭২ হাজার টাকা। আর্থিক অগ্রগতি হয়েছে ৫ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং বাস্তব অগ্রগতি ৭ শতাংশ। চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে ব্যয় হয়েছে ৪৪ লাখ ১৬ হাজার টাকা। ফলে আর্থিক অগ্রগতি দাঁড়িয়েছে ৪৪ দশমিক ১৬ শতাংশ এবং বাস্তব অগ্রগতি ৩০ শতাংশ।

স্টিয়ারিং কমিটির সভার কার্যবিবরণীতে বলা হয়েছে, সারাদেশে ৮০০টি নমুনা এলাকায় এই জরিপটি পরিচালিত হবে। প্রতিটি নমুনা এলাকায় ৪৫টি খানা হিসাবে মোট ৩৬ হাজার খানা থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হবে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর আদমশুমারি ও গৃহগণনা ২০১১ এর গণনা এলাকাগুলো এই জরিপের স্যাম্পলিং ফ্রেম হিসেবে ব্যবহার করা হবে।

বিজ্ঞাপন

ডিসঅ্যাবলড পিপিলস অর্গনাইজেশনসের (এনএফওডব্লিউডি) মহাসচিব ড.সেলিনা আখতার বলেন, প্রতিবন্ধীদের জীবনমান উন্নয়নে আর্থ-সামাজিক অবস্থা নিরুপণ বিবিএসের জরিপ পরিচালনার জন্য এ প্রকল্পটি নেওয়ার প্রয়োজন ছিল। এ জরিপ বিবিএস এনএফওডব্লিউডি এর সহযোগিতা নিতে চাইলে মাঠ পর্যায়ের তথ্য সংগ্রহসহ অন্যান্য কাজে তারা সহযোগিতা দিতে পারবে।

এ প্রসঙ্গে প্রকল্প পরিচালক বলেন, এ জরিপ কার্যক্রম পরিচালনায় তাদের মতামত সহযোগিতার জন্য প্রকল্পের বিভিন্ন কমিটিতে তাদেরকে সদস্যভুক্ত করা হয়েছে এবং বিভিন্ন সভা সেমিনারে তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেজে/এএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button