আন্তর্জাতিক

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর গুলিতে শিশু নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর গুলিতে সাত বছরের এক মেয়ে নিহত হয়েছে। গত মাসে দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থানের পর চলমান বিক্ষোভে নিহতের মধ্যে এটিই সবচেয়ে কম বয়সের নিহতের ঘটনা ঘটলো। খবর বিবিসি।

বিজ্ঞাপন

নিহত শিশুটির পরিবার জানায়, দেশটির মান্দালয় শহরে নিজ বাসায় মেয়েটিকে হত্যা করা হয়েছিল। এদিকে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার কর্মীরা বার্তা সংস্থা রয়টার্স’কে জানিয়েছে, চান মায়া থাজি এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে সাত বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম মিয়ানমার নাউ’র খবরে বলা হয়, সেনা সদস্যরা বাসার ভিতরে শিশুটির বাবাকে লক্ষ্য করে গুলি করে। কিন্তু এ সময় শিশুটি তার বাবার কোলে বসে থাকায় গুলিটি তাকে আঘাত করে।

বিজ্ঞাপন

নিহত শিশুটির নাম খিন মায়ো চিট। স্বেচ্ছাসেবী কর্মীরা জানিয়েছে, এ ঘটনার পর উদ্ধারকারী দল চিকিৎসা দেওয়ার জন্য আসলেও শিশুটিকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

পরিবারের সদস্যরা আরও জানিয়েছে, নিহত শিশুটির ৯ বছরের ভাইকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে দেশটির সেনাবাহিনী এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

বিজ্ঞাপন

গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে আন্দোলনের মুখে মিয়ানমার। শিশুদের অধিকার নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক সংস্থা সেফ দ্য চিলড্রেন জানিয়েছে, এই আন্দোলেন এ পর্যন্ত কয়েক ডজন ব্যক্তি নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ২০ জন শিশুও রয়েছে।

এদিকে মিয়ানমার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, চলমান আন্দোলনে এ পর্যন্ত ১৬৪ জন নিহত হয়েছে। তবে অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারস (এএপিপি) জানিয়েছে, এই আন্দোলনে ২৬১ জন নিহত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) বিক্ষোভকারীদের মৃত্যুতে দুঃখ প্রকাশ করেছিল মিয়ানমার সেনাবাহিনী। তবে নিহতদের বিরুদ্ধে দেশে অরাজগতা সৃষ্টির অভিযোগ করেছিল। সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র জানান, সামরিক অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভকারীরা দেশে সহিংসতা ও অগ্নিসংযোগের জন্য দায়ী ছিলেন।

সারাবাংলা/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button