সারাদেশ

বাড়িতে ঢুকে ২৪ মামলার আসামিকে কুপিয়ে খুন, আহত ৩

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

কুমিল্লা: কুমিল্লায় মাদক বিক্রি নিয়ে বিরোধের জেরে বাড়িতে ঢুকে নাদিম নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় তার মা, স্ত্রী ও ভাইকেও কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (২৬ মার্চ) সকালে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার সীমান্তবর্তী ভাটপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাদিমের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র ও মাদকসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২৪টি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সে ওই গ্রামের ইদু মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় আবদুল মান্নান নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভাটপাড়া গ্রামের নুরুল হকের ছেলে ফারুক ও তার স্ত্রী সাজনী বেগম সম্প্রতি মাদক নিয়ে গ্রেফতার হওয়ার পর কারাগারে যান। এ বিষয়ে প্রতিবেশি নাদিমকে সন্দেহ করে আসছিল তারা। গত বুধবার আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা ফের নুরুল হকের বাড়িতে মাদক উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করে। এই অভিযানের জন্য ও ফারুক ও তার সহযোগিরা নাদিমকে সন্দেহ করে ওইদিন দুপুরে তার বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায় এবং তাকে মারধর করে গুরুতর আহত করে।

পরে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে নাদিম বাড়িতে এলে প্রতিপক্ষের লোকেরা তার বাড়িতে ঢুকে এলোপাতারি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এসময় তাকে রক্ষা করতে এগিয়ে এলে তার মা রহিমা বেগম, স্ত্রী আমেনা আক্তার ও ভাই মহসিনকেও মারধরসহ কুপিয়ে আহত করা হয় এবং বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়।

বিজ্ঞাপন

পরে স্থানীয়রা তাদের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নাদিমকে (৩১) মৃত ঘোষণা করেন।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী জানান, নিহত নাদিমের মরদেহ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় আব্দুল মান্নান প্রকাশ মনা নামে একজন আটক করা হয়েছে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এআই/এমও


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button