স্বাস্থ্য

একদিনের ব্যবধানে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড

সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: দেশে একদিনে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রেকর্ড ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৩৫৮ জন। এছাড়া এদিন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু নয় হাজার ছাড়িয়ে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন ৫২ জন।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৩১ মার্চ) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সরকারি ও বেসরকারি আরটি-পিসিআর, জিন-এক্সপার্ট ও র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন মিলিয়ে মোট ২২৪টি ল্যাবরেটরিতে ২৬ হাজার ৬৭১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এই সময়ে আগের দিনেরসহ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৬ হাজার ৯৩১টি।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় যেসব নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, এর মধ্যে ৫ হাজার ৩৫৮ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে ৬ লাখ ১১ হাজার ২৯৫ জনের মধ্যে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৯০ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহের বিপরীতে শনাক্তের সংখ্যা ১৩ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত জেলাগুলোর মধ্যে মৌলভীবাজারে সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি। মুন্সিগঞ্জে দ্বিতীয় অবস্থানে। সবচেয়ে কম কক্সবাজারে।

এদিকে, সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২১৯ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হলেন ৫ লাখ ৪২ হাজার ৩৯৯ জন। সংক্রমণ শনাক্তের বিপরীতে সুস্থতার হার ৮৮ দশমিক ৭৩ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় ৫২ জনসহ করোনা সংক্রমণ নিয়ে দেশে মোট ৯ হাজার ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই ৫২ জনের মধ্যে ৩৮ জন পুরুষ, ১৪ জন নারী। এদের মধ্যে ৫১ জন হাসপাতালে এবং একজন বাড়িতে মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৫২ জনের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব রয়েছেন ৩০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী আট জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী আটজন। এছাড়া ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী পাঁচ জন, ২১ থেকে ৩০ একজন মারা গেছেন এই সময়ে। অনূর্ধ্ব ১০ বয়সী একটি শিশুরও মৃত্যু হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিভাগওয়ারি মৃতদের তথ্য বলছে, ৩২ জনের মধ্যে ৩৪ জনই ঢাকা বিভাগের। এছাড়া নয়জন রয়েছেন চট্টগ্রাম বিভাগের, তিনজন করে রয়েছেন রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের, সিলেন দুজন এবং রংপুরে একজন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, আজ বুধাবর দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত দেশে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন ৬৭ লাখ ৯৫ হাজার ৭৮০ জন। অন্যদিকে সোমবার (২৯ মার্চ) পর্যন্ত দেশে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৫৩ লাখ ১৯ হাজার ৬৭৯ জন। মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) সরকারি ছুটির কারণে ভ্যাকসিন কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/পিটিএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button