সারাদেশ

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার, ৩০‌ জেলের জেল-জ‌রিমানা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

ভোলা: জেলায় সরকা‌রি নি‌ষেধাজ্ঞা অমান্য ক‌রে মেঘনা ও তেঁতু‌লিয়া নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অবৈধ কারেন্ট জাল ব্যবহার করে ইলিশ শিকার করার সময় ৪৩ জন জে‌লে‌কে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বিজ্ঞাপন

শ‌নিবার (৩ এপ্রিল) বি‌কেলে ভ্রাম্যমাণ আদাল‌তের মাধ্যমে ১৯ জে‌লে‌কে এক বছর ক‌রে কারাদণ্ড ও ১১ জে‌লে‌কে ৫ হাজার ক‌রে মোট ৫৫ হাজার টাকা জ‌রিমানা ক‌রেন চরফ্যাশন উপ‌জেলা নির্বাহী অফিসার মো. রুহুল আমিন।

শ‌নিবার সকাল থে‌কে বি‌কেল পর্যন্ত চরফ্যাশন উপ‌জেলার চর মা‌নিকা ও নজরুল নগর ইউনিয়‌নের মেঘনা-‌তেঁতুঁ‌লিয়া নদীতে অভিযান পরিচালনা করে তা‌দের আটক করা হয়।

বিজ্ঞাপন

চরফ্যাশন উপ‌জেলার সি‌নিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. মারুফ হো‌সেন তথ্য নি‌শ্চিত ক‌রেছেন। তিনি জানান, নি‌ষেধাজ্ঞা অমান্য ক‌রে ওই এলাকার নদী‌তে ইলিশ শিকার করার সময় ২০‌ কে‌জি ইলিশ, ১৫টি ট্রলার, ১৫ হাজার মিটার কা‌রেন্ট জাল ও ১৫টি বেহু‌ন্দি জালসহ ৪৩ জে‌লে‌কে আটক করা হয়। প‌রে ভ্রাম্যমাণ আদাল‌তের মাধ্যমে ১৯ জে‌লে‌কে একবছর ক‌রে বিনাশ্রম কারাদণ্ড, ১১ জন জে‌লে‌কে ৫ হাজার ক‌রে ৫৫ হাজার টাকা জ‌রিমানা করা হয় এবং ১৩ জ‌নের বয়স ১৮ বছ‌রের কম হওয়ায় তাদের মু‌ক্তি দেওয়া হয়।

তি‌নি আরও জানান, জব্দ করা ইলিশ স্থানীয় এতিমখানায় বিতরণ করা হয় এবং জব্দ করা জাল আগু‌নে পু‌ড়িয়ে ফেলা হয়েছে। এছাড়াও ১৫টি ট্রলার পরবর্তী‌তে নিলাম দেওয়া হ‌বে।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, গত ১ মার্চ থে‌কে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ইলিশের অভয়াশ্রম হওয়ায় ভোলার ১৯০ কি‌লো‌মিটার নদী‌তে সব ধরনের মাছ শিকারের ওপর নি‌ষেধাজ্ঞা জারি ক‌রে সরকার। এসময় বি‌ক্রি, মজুদ, প‌রিবহন, বাজার জাতের ওপরও র‌য়ে‌ছে নি‌ষেধাজ্ঞা।

সারাবাংলা/এমও


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button