স্বাস্থ্য

আজও শনাক্ত ৭ হাজারের বেশি, মৃত্যু আরও ৫২ জনের

সারাবাংলা ডেস্ক

দেশে গত ২৪ ঘণ্টাতেও আগের দিনের মতো সাত হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয় দিন সংক্রমণ শনাক্ত হলো সাত হাজারের বেশি। এখন পর্যন্ত দেশে একদিনে সাত হাজারের বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে এই দুই দিনই।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন আরও ৫২ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা সংক্রমণ নিয়ে মৃত্যু পেরিয়ে গেল ৯ হাজার তিনশ।

সোমবার (৫ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে নতুন সংক্রমণ ও মৃতের তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আগের দিনের মতোই দেশের ২২৭টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর সরকারি ল্যাব ৫২টি ও বেসরকারি ৬৮টি; জিন এক্সপার্ট ল্যাব সরকারি ৩২টি ও বেসরকারি দুইটি; এবং র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট ল্যাব ৭৩টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয় ৩১ হাজার ৯৭৯টি। এর মধ্যে নমুনা পরীক্ষা করা হয় ৩০ হাজার ২৩৯টি। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ৪৮ লাখ ১৩ হাজার ৬২৪টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৬ লাখ ২৪ হাজার ১১৭টি, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১১ লাখ ৮৯ হাজার ৫০৭টি।

বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষা করা এসব নমুনার মধ্যে ৭ হাজার ৭৫টি নমুনায় করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে, যা গতকালের চেয়ে মাত্র ১২টি কম এবং দেশের ইতিহাসে একদিনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংক্রমণ এটি। এ নিয়ে দেশে ৬ লাখ ৪৪ হাজার ৪৩৯টি জন করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হলেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৪০ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে মোট শনাক্তের হার হার ১৩ দশমিক ৩৯।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৩২ জন। এ নিয়ে এ পর্যন্ত এই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৪১৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৬ দশমিক ১৯ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় যে ৫২ জন মারা গেছেন, তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন মোট ৯ হাজার ৩১৮ জন। মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৫। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৫২ জনের মধ্যে ৩৪ জন পুরুষ, ১৮ জন নারী। তাদের ৫০ জনই হাসপাালে মারা গেছেন, বাসায় মারা গেছেন দুই জন।

এই ৫২ জনের মধ্যে ৩২ জনের বয়স ষাটোর্ধ্ব, ৯ জনের বয়স ৫১ থেকে ৫০ বছর ও ছয় জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছর। এছাড়া ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী তিন জন এবং ১১ থেকে ২০ ও অনূর্ধ্ব ১০ বয়সী একজন করে মারা গেছেন। এই ৫২ জনের ৪০ জনই ঢাকা বিভাগের ও সাত জন চট্টগ্রাম বিভাগের। এছাড়া রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও রংপুর বিভাগে মারা গেছেন একজন করে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, সোমবার দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত সারাদেশে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য আবেদন করেছেন মোট ৬৯ লাখ ৪০ হাজার ২০৮ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৪৫ হাজার ৫৩৮ জন। গত ২৭ জানুয়ারির পর থেকে এ পর্যন্ত ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৫৪ লাখ ৯৮ হাজার ১৭২ জন।

সারাবাংলা/টিআর


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button