জাতীয়

দেশে ফিরল লিবিয়ায় আটকে পড়া ১৬০ বাংলাদেশি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস এবং দীর্ঘদিনের অস্থিতিশীলতার কারণে লিবিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর বেনগাজিসহ পূর্বাঞ্চলীয় শহরগুলোতে আটকে পড়া ১৬০ জন বাংলাদেশি নাগরিককে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) সহযোগিতায় দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার (৫ মে) জানায়, আইওএম’র চার্টার্ডকৃত বুরাক এয়ারের একটি ফ্লাইট বাংলাদেশিদের নিয়ে মঙ্গলবার (৪ মে) লিবিয়ার বেনগাজী বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছাড়ে। ফ্লাইটটি বুধবার সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। একই ফ্লাইটে লিবিয়ায় মৃত্যুবরণকারী একজন বাংলাদেশি নাগরিকের মৃতদেহও দেশে ফেরত আনা হয়েছে।

দেশে পৌঁছার পর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বিমানবন্দরে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশে প্রত্যাবর্তন করা অভিবাসীরা সকলেই স্বেচ্ছায় দেশে ফেরত এসেছেন। তাদের মধ্যে নয়জন অসুস্থ এবং সাতজন হেপাটাইটিস বি-তে আক্রান্ত হওয়ায় লিবিয়ার জেলে আটক ছিলেন। এছাড়া প্রত্যাবর্তন করা অভিবাসীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দীর্ঘ ৭-৮ বছর ধরে লিবিয়ায় কর্মরত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

লিবিয়ার বিরাজমান পরিস্থিতি, পর্যাপ্ত কাজের সুযোগ-সুবিধা না পাওয়া এবং দিনারের অবমূল্যায়নসহ আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতির বিবেচনায় তারা দীর্ঘদিন ধরে দেশে ফেরত আসার অপেক্ষায় ছিলেন। কিন্তু লিবিয়া থেকে কোন আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু না থাকায় তারা দেশে ফেরত যেতে পারছিলেন না। এই অবস্থায় বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে আইওএম’র সহায়তা চাওয়া হয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে তাদের সহায়তায় লিবিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের পর্যায়ক্রমে দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, কোভিড-১৯ পরবর্তী পরিস্থিতিতে লিবিয়ায় আটকে পড়া অভিবাসীদের আইওএম’র সহায়তায় দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য পরিচালিত এটি নবম ফ্লাইট। এখন পর্যন্ত মোট ১ হাজার ৩৭৯ জন অভিবাসীকে লিবিয়া থেকে দেশে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেআইএল/পিটিএম


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button