অর্থ-বাণিজ্য

পুঁজিবাজারে লেনদেন একদিনে কমেছে ৫৬০ কোটি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ‘লকডাউন’র মধ্যেও পুঁজিবাজারে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী ধারা অব্যাহত রয়েছে। বুধবার (২১ এপ্রিল) পুঁজিবাজারে টানা ৭ম দিনের মত সূচকের ঊর্ধ্বমুখী ধারা অব্যাহত রয়েছে। তবে এদিন পুঁজিবাজারে সূচকের সামান্য উত্থান হলেও আর্থিক ও শেয়ার লেনদেন কিছুটা কমেছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দুই পুঁজিবাজারে এক হাজার ৩৭১ কোটি টাকার শেয়ার কেনাবেচা হলেও আজ (বুধবার) তা কমে ৮১০ কোটি টাকায় নেমে এসেছে। একদিনে পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে ৫৬০ কোটি টাকা।

এদিকে বুধবার দিনশেষে প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩৫৪টি কোম্পানির ১৯ কোটি ৮৮ লাখ ১১ হাজার ১৮৯টি শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। লেনদেন হওয়া এসব শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৩০টির, কমেছে ১৫৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৭টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

বিজ্ঞাপন

এদিকে দিনশেষে ডিএসই’তে আর্থিক লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৭৭৬ কোটি ৭১ লাখ টাকা। আগের দিন মঙ্গলবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ২৯৯ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। এদিন ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের কার্যদিবসের চেয়ে ১ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৪২৩ পয়েন্টে উন্নীত হয়। এছাড়াও এদিন ডিএসই-৩০ মূল্য সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৮৩ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক প্রায় অপরিবর্তিত থেকে ১ হাজার ২৩৩ পয়েন্টে উন্নীত হয়।

অন্যদিকে অপর পুঁজিবাজার চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) এদিন ২৪২ কোম্পানির ৯৮ লাখ ৯২ হাজার ৬৩৯টি শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। লেনদেন হওয়া এসব শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে দাম বেড়েছে ১০২টির, কমেছে ৯৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টির কোম্পানির শেয়ারের দাম।

বিজ্ঞাপন

দিনশেষে সিএসই’র প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে ২৬ পয়েন্ট বেড়ে ১৫ হাজার ৭১১ পয়েন্টে উন্নীত হয়। এদিন সিএসইতে ৩৩ কোটি ৮২ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়। আগের দিন সিএসইতে ৭১ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছিল।

সারাবাংলা/জিএস/এনএস


Source link

আরো সংবাদ

Back to top button